6.6 C
Toronto
রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪

‘সেফার সাপ্লাই’ ড্রাগ কর্মসূচি নিয়ে উদ্বেগের মূলে ভয় ও নিন্দা

‘সেফার সাপ্লাই’ ড্রাগ কর্মসূচি নিয়ে উদ্বেগের মূলে ভয় ও নিন্দা
দেশের ওভারডোজ সংকট মোকাবিলায় ড্রাগ ব্যবহারকারীদের জন্য ফার্মাসিউটিক্যালদের প্রেসক্রাইবিংকে সমর্থনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেডারেল সরকার যা নিয়ে সমালোচনা উঠেছে

দেশের ওভারডোজ সংকট মোকাবিলায় ড্রাগ ব্যবহারকারীদের জন্য ফার্মাসিউটিক্যালদের প্রেসক্রাইবিংকে সমর্থনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেডারেল সরকার, যা নিয়ে সমালোচনা উঠেছে। ভয় ও নিন্দা এর কারণ বলে বিশ্বাস করেন কানাডার মানসিক স্বাস্থ্য ও মাদকাসক্তি বিষয়ক মন্ত্রী ইয়া’আরা স্যাকস।

সেফার সাপ্লাই কর্মসূচি ও পর্যবেক্ষণের আওতায় কনজাম্পশন সাইট পরিচালনাসহ ক্ষতি হ্রাস সংক্রান্ত অধিকাংশ কৌশল ধাক্কা খাওয়ার জন্য অস্বস্তিকে দায়ী করেছেন ইয়া’আরা স্যাকস। তিনি বলেন, অনেকেই বাস্তবতা অনুধাবন করছেন, যা তারা উপেক্ষা করতে পারেন না।

- Advertisement -

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, এ নিয়ে বিতর্কটা কঠিন। কারণ, অনেকেই চোখ ফিরিয়ে রেখেছেন এবং এখন আর চোখ ফিরিয়ে রাখতে পারবেন না তারা।

এটা হলে বাস্তবতা যা দাঁড়াবে তা হলো কানাডায় ওভারডোজে আকাশচুম্বি মৃত্যু। পাবলিক হেলথ এজেন্সি অব কানাডা জানিয়েছে, ড্রাগ ওভারডোজে গত বছর কানাডায় প্রতিদিন গড়ে ২৩ জন করে মারা গেছে। ২০১৬ সাল থেকে ওপিয়ড সংক্রান্ত মৃত্যু হয়েছে ৪০ হাজার মানুষের। ওই সময় থেকে এ সংক্রান্ত উপাত্ত সংগ্রহ শুরু করে ফেডারেল সংস্থাটি।

উপাত্ত বলছে, ২০২৩ সালে জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত সময়ে ওভারডোজে মৃত্যুর সিংহভাগ ফেন্টানাইল সংশ্লিষ্ট। গত দুই মাসে সাস্কেচুয়ান, থান্ডার বে ও বেলভিলের পুলিশ ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা ওপিয়ডের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছেন। বিশেষ করে ফেন্টানাইল সম্পর্কে, যার সঙ্গে জাইলাজিন নামে পরিচিত অ্যানিমেল ট্র্যাঙ্কুইলাইজার মেশানো হয়ে থাকে। ডিলাররা প্রায় সময়ই অন্যান্য দ্রব্যের সঙ্গে ফেন্টানাইল মিশিয়ে থাকে। কারণ, খাটি ওপিয়ডের চেয়ে এটা সস্তা।

কোভিড-১৯ মহামারির সময় ওভারডোজ সংকট আরও খারাপের দিকে যায়। কারণ, সীমান্ত বন্ধ থাকায় ভেজাল মাদকের সরবরাহ বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে স্বাস্থ্য বিধিনিষেধের ফলে মাদক নিরাময় সেবা প্রাপ্তি সীমিত হয়ে পড়ে এবং একা একা মাদক গ্রহণের পাশাপাশি অনেক বেশি মাত্রায় ব্যবহার বেড়ে যায়।
এ কারণে ফেডারেল সরকার ওভারডোজের উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা ব্যবহারকারীদের রাস্তার পাশের বিষাক্ত মাদকের পরিবর্তে প্রেসক্রাইবড ফার্মাসিউটিক্যাল বিকল্পের সুযোগ করে দেয়, যা সেফার সাপ্লাই নামে পরিচিত।

প্রথম অঞ্চল হিসেবে ব্রিটিশ কলাম্বিয়া এটার পরীক্ষা চালায়। নিউ ব্রান্সউইক এবং অন্টারিওতে পরীক্ষামূলক কর্মসূচির জন্য অটোয়া তহবিল জোগান দিচ্ছে। ওপিয়ড হাইড্রোমরফোনকে এক্ষেত্রে সবচেয়ে সাধারণ বিকল্প ট্যাবলেট হিসেবে উল্লেখ করেছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles