-4.7 C
Toronto
শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০২৩

সিআরটিসির বিরুদ্ধে ক্ষমতা বহির্ভুত পদক্ষেপের অভিযোগ

সিআরটিসির বিরুদ্ধে ক্ষমতা বহির্ভুত পদক্ষেপের অভিযোগ
সিবিসিরেডিও কানাডা সিআরটিসির ২৯ জুনের সিদ্ধান্তের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে ওই সিদ্ধান্তে অভিযোগকারীর কাছে সোসিয়েতে রেডিও কানাডাকে লিখিত ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিল

সিবিসি/ রেডিও-কানাডার বারংবার এন-শব্দ ব্যবহারের ব্যাপারে শর্থ আরোপের ব্যাপারে কানাডিয়ান রেডিও-টেলিভিশন অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন্স কমিশন (সিআরটিসি) ক্ষমতা বহির্ভুত কাজ করেছে বলে জানিয়েছে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়।

এক শয়ের বেশি পৃষ্ঠার অ্যাটর্নি জেনারেলের প্রস্তাবে এই সুপারিশ করা হয়েছে যে, সিআরটিসির সিদ্ধান্ত সরিয়ে রাখতে পারে ফেডারেল কোর্ট অব আপিল। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের দায়িত্ব আদালতের হলেও একজন আইনজীবী বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থানের সঙ্গে আদালত দ্বিমত পোষণ করবে বলে খুব একটা মনে হয় না।
সিবিসি/রেডিও-কানাডা সিআরটিসির ২৯ জুনের সিদ্ধান্তের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে। ওই সিদ্ধান্তে অভিযোগকারীর কাছে সোসিয়েতে রেডিও-কানাডাকে লিখিত ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিল। সেই সঙ্গে অভ্যন্তরীণ পদক্ষেপ ও ভবিষ্যতে এ ধরনের সমস্যা দেখা দিলে তা সমাধানের প্রোগ্রামিং প্র্যাক্টিসের বিষয়ে লিখিতভাবে জানাতে বলা হয়েছিল। রেডিও-কানাডা অভিযোগকারীর কাছে ক্ষমাও চায় কিন্তু সিআরটিসির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করে জানায়, নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ তার কর্তৃত্ব বহির্ভুত কাজ করেছে।

- Advertisement -

সিআরটিসির এ সিদ্ধান্তটি আসে মন্ট্রিয়লের একজন কৃষ্ণাঙ্গ বাসিন্দা রিকার্ডো ল্যামারের কাছ থেকে। রেডিও শোর অতিথি হওয়ার জন্য অপেক্ষা করার সময় ওই অংশটুকু শোনেন তিনি। সাড়ে ছয় মিনিটের ওই প্রোগ্রামে হোস্ট অ্যানি ডেসরোচার ও কলামিস্ট সিমন জোডোইন ফ্রেঞ্চ ভাষায় তিনবার এবং ইংরেজিতে একবার এন শব্দ ব্যবহার করেন। কনকোর্ডিয়া ইউনিভার্সিটির একজন অধ্যাপকের পদচু্যূতির দাবি নিয়ে সম্প্রচারিত এক আলোচনা অনুষ্ঠানে এটি উচ্চারণ করেন তারা। ওই অধ্যাপক এন-ওয়ার্ড সম্বলিত পেয়েরে ভ্যালেরিসের বিখ্যাত বই থেকে উদ্ধৃতি ব্যবহার করেন।
অভিযোগের বিষয়ে দেওয়া সিদ্ধান্তে সিআরটিসি বলে, ¤্রােতাদের ওপর শব্দটির প্রভাব নিরসনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়নি রেডিও-কানাডা।

এর প্রতিক্রিয়ায় রেডিও-কানাডার ৫০ জনের মতো ব্যক্তি একটি খোলা চিঠিতে স্বাক্ষর করেন, যা লা প্রেসেতে প্রকাশিত হয়। তাতে দাবি করা হয়, এই সিদ্ধান্ত সাংবাদিকতার স্বাধীনতার বিরোধী। একই সঙ্গে স্বনিয়ন্ত্রণ আরোপের দরজাটাও উন্মুক্ত করে দেওয়া।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles