24.9 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২

কমে আসছে মহামারিকালে গচ্ছিত সম্পদ

- Advertisement -
ছবি/সিলভেস্ট্রি মেটিও

মূল্যস্ফীতি প্রকৃত মজুরি কমিয়ে দেওয়ায় ও সুদের উচ্চ হার অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি থামিয়ে দেওয়ায় কানাডিয়ান পরিবারগুলোর আর্থিক অবস্থার করুণ চিত্র উঠে এসেছে নতুন এক গবেষণায়। বুধবার প্রকাশিত ডেসজার্ডিন্সের গবেষণা বলছে, মহামারি থেকে পুনরুদ্ধারে ফাঁটল দেখা দেওয়ায় পারিবারিক বাজেটের জন্য সামনের মাসগুলো অমসৃণ হবে। অনেক সম্পদের মূল্য ঝুঁকিতে থাকায় ও কানাডিয়ান পরিবারগুলোর দায় বাড়তে থাকায় সম্পদের ভবিষ্যৎ ভালো মনে হচ্ছে না।

গবেষণা বলছে, অস্বাভাবিক এই অর্থনৈতিক ও আর্থিক চক্র শেষে কানাডিয়ান পরিবারগুলোতে যে বিপুল পরিমাণ সম্পদ জমেছিল তা প্রকৃত অর্থে সংকুচিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সরকারি সহায়তা কর্মসূচি প্রত্যাহারের ফলেও পারিবারিক বাজেট ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কারণ, খরচ বেড়ে যাওয়ায় সঞ্চয়ের হার পর্যায়ক্রমে কমে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গবেষণার তথ্য অনুযায়ী, আয় কম ও দায় বেশি এমন কানাডিয়ানদের ওপর এর প্রভাবটা বেশি অনুভুত হবে। উচ্চ দায় ও ক্রমবর্ধমান সুদের হার ভোক্তাদের অসমর্থতা বাড়িয়ে দেবে। এর মধ্যেও সুখের কথা হলো মূল্যস্ফীতি কমলেও আয় প্রবৃদ্ধি ভালো থাকবে বলে অনুমান করা যায়। উচ্চ বেতন ও মূল্যস্ফীতি স্বাভাবিক পর্যায়ে ফেরার ফলে ভোক্তাদের দেউলিয়াত্বে লাগাম পড়বে।

২০২২ সালে শক্তিশালী শুরু সত্ত্বেও সামনের মাসগুলোতে ভোক্তা ব্যয় ও ভোগ প্রবৃদ্ধি শ্লথ থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। অর্থনৈতিক কর্মকা- খুলে দেওয়ার পর সেবা ব্যয় কমে আসা ও ভোগ্য পণ্যের উচ্চ মূল্যের প্রভাব এর কারণ মূলত। এছাড়া সুদের হার বাড়তে থাকায় ঋণ পরিশোধও সামনের দিনে ব্যয়বহুল হয়ে দাঁড়াবে। মহামারির পুরো সময়জুড়ে এটা কম ছিল।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles