24.9 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২

এয়ার কানাডার ক্ষতিপূরণ নিয়ে যাত্রীদের প্রতিবাদ

- Advertisement -
ফাইল ছবি

রিফান্ড, ক্ষতিপূরণ এবং ফ্লাইট বিলম্ব ও বাতিলের কারণ জানাতে প্রতারণার আশ্রয় নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা। দেশের সর্ববৃহৎ উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থাটি খারাপ আবহাওয়ার কারণে ফ্লাইট বিলম্বের তথ্য যাত্রীদের জানায় মন্ট্রিলের উদ্দেশে যাত্রা পরিকল্পনারও ১৪ দিন আগে।

আরেকজন যাত্রী সম্প্রতি ব্যাগেজ বিলম্বের কথা জানান। এর ফলে তার সরাসরি রিফান্ডের পরিবর্তে ৬০ ডলারের ইকুপন পাওয়ার কথা। ফেডারেল আইন এবং এয়ার কানাডার প্যাসেঞ্জার-ক্যারিয়ার চুক্তিতেই এমনটা উল্লেখ করা আছে।

কারিগরী কারণ দেখিয়ে এয়ারলাইনটি গত মঙ্গলবার ন্যাশভিল থেকে টরন্টোগামী ফ্লাইটটি বাতিল করে। কিন্তু একই উড়োজাহাজ নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পরে ন্যাশভিল থেকে বোস্টনের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। কারিগরী ত্রুটির কথা উল্লেখ করার পরও যাত্রা করে উড়োজাহাজটি।

ভোক্তা সুরক্ষা নিয়ে কাজ করা লিয়াম ওয়ালশ এয়ারলাইনটির উল্লেখিত কারণকে প্রশ্নবিদ্ধ বলে মন্তব্য করেন। এয়ার কানাডা এক ইমেইল বার্তায় জানায়, লিসবন ফ্লাইটকে ঘিরে আবহাওয়া সংক্রান্ত ভুল ছিল এবং সেটি সংশোধন করা হয়েছে। সূচি পরিবর্তনের কারণে গ্রাহকদের মধ্যে যে হতাশা ও অসুবিধা সৃষ্টি হয়েছে আমরা সেটা স্বীকার করছি এবং প্যাসেঞ্জার রাইটস চার্টারের অধীনে সব বাধ্যবাধকতা এয়ার কানাডা মেনে চলে।

This article was written by Sohely Ahmed Sweety as part of the LJI.

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles