-3.9 C
Toronto
মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২২

প্রধানমন্ত্রী যখন কোয়ারেন্টাইনে

- Advertisement -
বাবা দিবসে জাস্টিন ট্রুডো

একটি দেশের আইন কানুন সকল কিছুর মান্য শুরু হয় যেখান থেকে তা হলো সেই দেশের মাথা তথা সরকার প্রধান বা রাষ্ট্র প্রধান থেকে। কানাডার সরকার প্রধান জাষ্টিন ট্রুডো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সেটা খুব ভাল করেই জানেন। যে কারণে জি-৭ সম্মেলন শেষে ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম থেকে গতকাল দেশে ফিরে সোজা এয়ারপোর্টের তিন তারকা (পাঁচ তারকা নয়) হোটেলে উঠেছিলেন কোয়ারেন্টাইনের তিন দিন থাকার জন্য। সাথে ছিলেন তার সফর সংগী সব সরকারী কর্মকর্তা ও সাংবাদিকগণ। তাও আবার একই ফ্লোরে।

কানাডার সকল নাগরিকের জন্য নিয়ম হলো যারা প্লেনে করে দেশে ফিরবেন তাদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন করতে হবে। তার মধ্যে প্রথম তিনদিন এয়ারপোর্ট সংলগ্ন সরকার নির্ধারিত মাঝারি মানের হোটেলে নিজ খরচে থাকতে হবে। এরপর কোভিড টেষ্টের রেজাল্ট নেগেটিভ হলে বাকী দিনগুলো বাসায় গিয়ে কোয়ারেন্টাইন করতে হবে। কোন ব্যতিক্রম হবে না।

- Advertisement -

জাষ্টিন ট্রুডো দেশের প্রধানমন্ত্রী হলেও তাকে একই নিয়ম পালন করতে হয়। যদিও বিরোধী কনজারভেটিভ পার্টি আশংকা করেছিল জাষ্টিন ট্রুডো তা করবেন না। বিরোধীদের আশংকা ভুল প্রমান করে তিনি সাধারণ মানের হোটেলে উঠেন এবং আজ কোভিড টেষ্টে নেগেটিভ হবার পর হোটেল ত্যাগ করে বাসায় চলে যান। উল্লেখ্য যে এবারের বিদেশ সফরকালে তাকে অন্তত: দশবার কোভিড পরীক্ষা করাতে হয়। তিনি সব নিয়ম সুবোধ বালকের মত পালন করেছেন এ কারণে যে তিনি নিজেই যদি আইন না মানেন তাহলে দেশের সাধারণ মানুষ আইন মানবে না। খুবই সহজ ও সরল হিসাব। দেশের ভিভিআইপি বলে তাঁর আইন অমান্য করার বা আইনের ব্যত্যয় ঘটানোর কোন সুযোগ নাই। সে কারণেই কানাডা আজ বিশ্বের সত্যিকারের একটি গনতান্ত্রিক দেশ।

টরন্টো, কানাডা

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles