-7.8 C
Toronto
মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩১, ২০২৩

চতুর্থ ঢেউয়ের আশঙ্কা

চতুর্থ ঢেউয়ের আশঙ্কা
আদিবাসী সেবা বিষয়ক মন্ত্রী মার্ক মিলার

ম্যানিটোবায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী অ-আদিবাসী মানুষের গড় বয়স ৮০ বছর হলেও আমিবাসীদের মধ্যে এ বয়স ৬৩ বছর। এছাড়া আদিবাসীরা প্রদেশের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ হওয়ার পরও কোভিড-১৯ মারা গেছেন মোট মৃত্যুবরণকারীর ২০ শতাংশ। কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন ৩৩ হাজারের বেশি আদিবাসী, যাদের বেশিরভাগই প্রেইরি এলাকার। এদিকে, প্রদেশগুলোর কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আদিবাসী সেবা বিষয়ক মন্ত্রী মার্ক মিলার। মঙ্গলবার দ্য কানাডিয়ান প্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, এ পদক্ষেপ আদিবাসী লোকজনের মধ্যে সংক্রমণের চতুর্থ ঢেউ ডেকে আনতে পারে। গত বছর দ্বিতীয় ঢেউ চলা অবস্থাতেই দেশের অনেক এলাকা স্বাভাবিক কার্যক্রম দ্রুত চালু করে দিয়েছিল এবং আদিবাসী কমিউনিটিগুলোর ওপর এর প্রভাব হয়েছিল মারাত্মক। আমার জন্য এটা খুবই উদ্বেগের।

সবচেয়ে বেশি আদিবাসী বাস করেন প্রেইরি অঞ্চলের প্রদেশগুলোতে। এগুলোর অধিকাংশই কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। এ সপ্তাহের শুরুর দিকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধানের বিধান প্রত্যাহারের পাশাপাশি ব্যবসার ওপর অনেক বিধিনিষেধ শনিবার থেকে তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ম্যানিটোবা। সাস্কেচুয়ান প্রদেশও মহামারির বিস্তার রোধে আরোপিত অধিকাংশ বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নিয়েছে। আর আলবার্টা জনগণের ওপর থেকে জনস্বাস্থ্য সম্পর্কিত সব বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায় স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে প্রদেশটিকে।

- Advertisement -

মিলার বলেন, সঠিক স্বাস্থ্য নীতির সঙ্গে ভ্যাকসিন, সচেতনতা ও জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিধিবিধান অব্যাহত রাখার বিষয়টি জড়িত। কিন্তু অর্থনীতি ও প্রদেশগুলো যদি তড়িঘড়ি খুলে দেওয়া হয় তাহলে সেগুলো আর থাকে না।

আদিবাসী কমিউনিটির ওপর মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ ভয়াবাহ প্রভাব ফেলার বিষয়টি পরিস্কার হওয়ার পর গত ফলে ফার্স্ট নেশন নেতারা তাদের আশঙ্কার কথা প্রকাশ করেছিলেন। সংক্রমণ রোধে অনেক রিজার্ভের ওপর তখন লকডাউন ও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles