22.5 C
Toronto
সোমবার, জুলাই ১৫, ২০২৪

বিচার ব্যবস্থার ওপর ক্ষুব্ধ অন্টারিওর এক নারী

বিচার ব্যবস্থার ওপর ক্ষুব্ধ অন্টারিওর এক নারী

কেইট আলেক্সান্ডার নিজেকে গৃহ সহিংসতার শিকার বলতে রাজি নন। বরং কানাডার বিচার ব্যবস্থার শিকার ভাবতেই বেশি পছন্দ করেন।

- Advertisement -

তার সাবেক বয়ফ্রেন্ডের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা শেষ পর্যন্ত বাতিলের আগে দুই দফা শুনানি পুনর্নির্ধারণ করা হয়। ২০২১ সালে তাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ আনা হয় তার সাবেক বয়ফ্রেন্ডের বিরুদ্ধে।

কুইন’স পার্কে ২৮ মার্চ সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের আলেক্সান্ডার বলেন, আমার হত্যাচেষ্টা অগ্রাধিকার নয় বলে আমাকে বলা হয়। এর অর্থ হচ্ছে খুবই সহিংস নিপীড়কও কোনো ধরনের পরিণাম ছাড়াই মুক্ত।

মঞ্চে দাঁড়িয়ে আলেক্সান্ডার বলেন, তিনি এর ব্যতিক্রম নন। যৌন সহিংসতার শিকার অসংখ্য নারীর সঙ্গে তিনি এ নিয়ে কথা বলেছেন। এই সরকার অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর নয়। ব্যবস্থাটির আশু সংস্কার প্রয়োজন। কেবল ভুক্তভোগীর ওপর প্রভাব ফেলার কারণে কানাডিয়ানরা নিরাপদ নন।

এ নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিরা বলছেন, সহিংস অপরাধ সংশ্লিষ্ট মামলাগুলো গুরুত্ব না পাওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে অন্টারিও বিচার খাতে কর্মী স্বল্পতা ও তহবিল ঘাটতি।

ভুক্তভোগীদের ক্ষেত্রে ফৌজদারি মামলার সময় একবার চলে গেলে প্রতিকার পাওয়া যায় খুব কমই। আদালতে সাক্ষ্য দেওয়ার পরও ২০২৩ সালে এমিলি অ্যাগারের যৌন নিপীড়নের মামলা বাতিল হয়ে যায়। অ্যাগার ২৮ মার্চ বলেন, ৭৮৯ দিন আগে আমি ধর্ষণের শিকার হই। জর্ডানের সিদ্ধান্ত এক্ষেত্রে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এই ধর্ষকের মামলার শুনানি ও রায়ের জন্য সর্বোচ্চ ৫৪০ দিন সময়ের সুযোগ দিয়েছে এটি। দ্রুত বিচারের অধিকারের কারণে অভিযোগটি স্থগিত থাকার পর ১৪৭ দিন এরই মধ্যে চলে গেছে

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles