17 C
Toronto
সোমবার, মে ২৭, ২০২৪

স্পিকারের পদত্যাগ চেয়েছে কনজার্ভেটিভ পার্টি

স্পিকারের পদত্যাগ চেয়েছে কনজার্ভেটিভ পার্টি
ট্রুডোকে উন্মাদ প্রধানমন্ত্রী বলে উল্লেখ করার পর এবং ফারগাসের অনুরোধ সত্ত্বেও তা প্রত্যাহারে অস্বীকৃতি জানালে পয়লিয়েভরকে অধিবেশন থেকে বের করে দেওয়া হয়

হাউস অব কমন্সের স্পিকার গ্রেগ ফারগাসের পদত্যাগ দাবি করেছেন কনজার্ভেটিভ এমপিরা। ৩০ এপ্রিল উত্তপ্ত বিতর্কের সময় তাদের নেতাদের বের করে দেওয়া হলেও প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়াই এই দাবি তুলেছেন তারা।

টোরি এমপিরা বলেছেন, ট্রুডো ও কনজার্ভেটিভ নেতা পিয়েরে পয়লিয়েভরের মধ্যে উত্তেজনাকর বাক্য বিনিময়ের সময় উভয়ের জন্য একই নিয়ম প্রয়োগ করেননি ফারগাস।

- Advertisement -

ট্রুডোকে উন্মাদ প্রধানমন্ত্রী বলে উল্লেখ করার পর এবং ফারগাসের অনুরোধ সত্ত্বেও তা প্রত্যাহারে অস্বীকৃতি জানালে পয়লিয়েভরকে অধিবেশন থেকে বের করে দেওয়া হয়। এর প্রতিবাদে তার পুরো ককাস শেষ পর্যন্ত অধিবেশন কক্ষ ত্যাগ করে।
হেরোইন ও ফেন্টানাইলের মতো মাদক প্রকাশ্যে অধিকার রাখা অপরাধ নয় বলে হেলথ কানাডার যে বিধান তাতে সংশোধনী আনতে ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার অনুরোধ মানতে ট্রুডোর ওপর পয়লিয়েভর যখন অব্যাহতভাবে চাপ দিতে থাকেন তখন অপমানসূচক এই বাক্য ব্যবহার করা হয়। পাল্টা জবাবে ট্রুডো পয়লিয়েভরকে চরম দক্ষিণপন্থার প্রচারক উল্লেখ করে তিনি নির্বাচিত কর্মকর্তার যোগ্য নন বলে মন্তব্য করেন।

গত সপ্তাহে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়, যেখানে পয়লিয়েভরকে আটলান্টিক কানাডায় কার্বন প্রাইসের প্রতিবাদকারী একটি ক্যাম্প পরিদর্শন করতে দেখা যায়। সেখানে একটি ট্রেইলারের গায়ে অতি দক্ষিণপন্থী গ্রুপ ডায়াগলনের প্রতীক আঁকা দেখা যায়।

কনজার্ভেটিভ এমপি জন ব্রাসার্ড ১ মে বলেন, টোরিদের শে^তাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের সঙ্গে যুক্ত বলে মন্তব্যের মাধ্যমে অমর্যাদাকর ভাষা ব্যবহার করেছেন ট্রুডো। কনজার্ভেটিভ পার্টি বর্তমানে এত বেশি বিচিত্র গুপের প্রতিনিধিত্ব করছে, যা আগে কখনো দেখা যায়নি। কোনো না কোনোভাবে আমরা শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদী বা বর্ণবাদী এমনটা বলা অমর্যাদাকর বলে আমি মনে করি।
পার্লামেন্টে দলের এথিকস ক্রিটিক মাইকেল ব্যারেট বলেন, মাদক নীতিতে সমর্থনের পরিবর্তে প্রধানমন্ত্রী যখন ব্যক্তিগত অপমান করেন তখন অবশ্যই হাউসে সবার জন্য একই নীতি প্রয়োগ করা উচিত।

ফারগাসের একজন মুখপাত্র বলেছেন, পয়লিয়েভরকেই কেবল নয়, পয়লিয়েভরকে মেরুদ-হীন নেতা হিসেবে উল্লেখ করলে ট্রুডোকেও এ ধরনের বক্তব্য থেকে বিরত থাকতে বলেন স্পিকার। প্রধানমন্ত্রী তার উত্তরদানে বিরত থাকেন। পয়লিয়েভরকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার এবং প্রশ্ন করা থেকে বিরকত থাকতে চারটি সুযোগ দিয়েছিলেন স্পিকার। কিন্তু মি. পয়লিয়েভর সে সুযোগ নেননি।

পয়লিয়েভর বরং ফার্গাসকে বলেন, চরমপন্থী ও মৌলবাদী শব্দ দিয়ে উন্মাদ শব্দটি প্রতিস্থাপন করতে চান তিনি। স্পিকার তা প্রত্যাখ্যান করেন এবং সবগুলো বক্তব্যই বাতিল করতে বলেন। তাতেও রাজি না হলে ফারগাস তাকে অধিবেশ কক্ষ ত্যাগ করতে বলেন।

ফারগাসের পদত্যাগের কোনো ইচ্ছা নেই বলেও জানান মুখপাত্র গ্র্যাভেল।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles