দেড় লাখের মতো শিশুকে আবাসিক স্কুল ব্যবস্থায় ভর্তি হতে বাধ্য করা হয়েছে

- Advertisement -
ক্যাথলিক চার্চ পরিচালিত সাবেক মারিয়েভাল ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুল প্রাঙ্গণে অচিহ্নিত ৭৫১টি কবর পাওয়ার ঘটনায় আন্তর্জাতিক সংবাদ শিরোনামে উঠে আসে সাস্কেচুয়ান ফার্স্ট নেশন। ডেলোরমি বলেন, এখনও বেঁচে থাকা অনেকের পীড়নের স্বীকৃতি হিসেবে কাজ করবে এই ক্ষমা প্রার্থনা

সারা দেশে দেড় লাখের মতো শিশুকে আবাসিক স্কুল ব্যবস্থায় ভর্তি হতে বাধ্য করা হয়েছে। এসব স্কুলের ৬০ শতাংশই ক্যাথলিক চার্চ পরিচালিত। এর আগে ২০০৯ সালে ফার্স্ট নেশন নেতা ও বেঁচে থাকা আবাসিক স্কুলের শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল সাবেক পোপ বেনেডিক্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিল। পোপ বেনেডিক্ট তার ব্যক্তিগত দুঃখ ও ক্ষোভ প্রকাশ করলেও কখনই ক্ষমা চাননি।

পোপ ফ্রান্সিস কানাডা সফরে এলে আবাসিক স্কুল ব্যবস্থা নিয়ে ক্যাথলিক চার্চের ভূমিকার জন্য অবশ্যই তার ক্ষমা চাওয়ার প্রস্তুতি থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন আদিবাসী নেতারা। কাউয়েসেস ফার্স্ট নেশনের প্রধান ক্যাডমাস ডেলোরমে বলেন, ক্ষমা চাওয়া দরকার এবং এর পরই সম্পর্ক পুনর্নির্মাণ সম্ভব।

- Advertisement -

ক্যাথলিক চার্চ পরিচালিত সাবেক মারিয়েভাল ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুল প্রাঙ্গণে অচিহ্নিত ৭৫১টি কবর পাওয়ার ঘটনায় আন্তর্জাতিক সংবাদ শিরোনামে উঠে আসে সাস্কেচুয়ান ফার্স্ট নেশন। ডেলোরমি বলেন, এখনও বেঁচে থাকা অনেকের পীড়নের স্বীকৃতি হিসেবে কাজ করবে এই ক্ষমা প্রার্থনা।

ভ্যাটিকানের পক্ষ থেকে বুধবার এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দীর্ঘদিনের রেওয়াজ অনুযায়ী আদিবাসী লোকদের সঙ্গে সম্প্রীতির প্যাস্টোরাল প্রসেসের প্রেক্ষিতে কানাডিয়ান কনফারেন্স অব ক্যাথলিক বিশপস পোপ ফ্রান্সিসকে কানাডা সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। পোপ এতে সম্মতি জানালেও সফরের দিনক্ষণ জানাননি।

- Advertisement -

পোপ তার সফরকালে যে ক্ষমা চাইবেন সে নিশ্চয়তাও দেওয়ান হয়নি। যদি অ্যাসেম্বলি অব ফার্স্ট নেশন্সের জাতীয় প্রধান রোজঅ্যানি আর্কিবল্ড এক ইমেইল বিবৃতিতে বলেছেন, আত্মীকরণ ও গণহত্যার নিমিত্তে এসব ইনস্টিটিউশন চালানোর দায়ভার ক্যাথলিক চার্চকে অবশ্যই নিতে হবে। যেকোনো সফরে ডায়োসিসকে জমি ফেরত দেওয়া ও দীর্ঘমেয়াদী সহায়তা কর্মসূচিতে বিনিয়োগের মতো ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করতে হবে ক্যাথলিক চার্চকে।

- Advertisement -

ইনুইট তাপিরিত কানাতামির প্রেসিডেন্ট নাটান ওবেদ বলেন, চার্চের পক্ষ থেকে ক্ষমা প্রার্থনা হবে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ও আদিবাসীদের সম্মান প্রদর্শনের প্রতিশ্রুতি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles