ভ্যাকসিন নীতি পরিপালন না করায় ১৪৭ কর্মীকে বিনা বেতনে ছুটি

- Advertisement -
সব স্বাস্থ্যকর্মীকে বাধ্যতামূলকভাবে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনতে প্রোগ্রেসিভ কনজার্ভেটিভ সরকারের ওপর চাপ বাড়ছে

 

অন্টারিও হসপিটাল অ্যাসোসিয়েশন সব স্বাস্থ্যকর্মীকে বাধ্যতামূলকভাবে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনতে জুলাই থেকে দাবি জানিয়ে আসছে। এর প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করে গত সপ্তাহেই ফোর্ডের চিঠির উত্তরও দিয়েছে তারা। নীতিটির প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছে অন্টারিও সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিলও। তথ্য-প্রমাণভিত্তিক এ নীতি অন্টারিওবাসীকে সুরক্ষা দেবে বলে মন্তব্য করেছে তারা। তবে অনেক হাসপাতাল প্রশাসকই এখন পর্যন্ত তাদের প্রতিক্রিয়া জানাননি বলে মঙ্গলবার মন্তব্য করেন প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড।

- Advertisement -

অন্টারিও সরকার এখন পর্যন্ত র‌্যাপিড টেস্টের ভিত্তিতে ভ্যাকসিনেশনের বাইরে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীদের কাজের সুযোগ দিলেও ৭০ শতাংশ হাসপাতাল এ ব্যাপারে কঠোর নীতি প্রয়োগ করছে বলে মনে করা হচ্ছে। হসপিটাল ফর সিক চিলড্রেন বাধ্যতামূলক ভ্যাকসিন নীতি পরিপালন না করায় ১৪৭ কর্মীকে গত সপ্তাহে বিনা বেতনে ছুটিয়ে পাঠিয়েছে। একই কারণে ১ শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছে দ্য ইউনিভার্সিটি হেলথ নেটওয়ার্কও।

সব স্বাস্থ্যকর্মীকে বাধ্যতামূলকভাবে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের আওতায় আনলে জনবলের ওপর এর সম্ভাব্য কি প্রভাব পড়তে পারে সে ব্যাপারে এখনও হাসপাতাল প্রশাসকদের উত্তরের অপেক্ষায় আছেন অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড। সব স্বাস্থ্যকর্মীকে
বাধ্যতামূলকভাবে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনতে প্রোগ্রেসিভ কনজার্ভেটিভ সরকারের ওপর চাপ বাড়ছে। চাপ প্রদানকারীদের মধ্যে মহামারি নিয়ে ডগ ফোর্ডকে পরামর্শ প্রদানকারী বিজ্ঞানীদের একটি দলও রয়েছে।

- Advertisement -

তবে প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণে রাজি হননি। এক্ষেত্রে তার যুক্তি হলো, হাসপাতালগুলোর ওপর থেকে চাপ এখনও দূর হয়নি। এ অবস্থায় সব স্বাস্থ্যকর্মীর জন্য ভ্যাকসিনেশন বাধ্যতামূলক করা হলে হাজারো স্বাস্থ্যকর্মীকে চাকরিচ্যুত করতে হতে পারে।

- Advertisement -

যদিও স্বাস্থ্যকর্মীদের বাধ্যতামূলকভাবে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের আওতায় আনার ব্যাপারে এ সপ্তাহের শেষ দিকে ঘোষণা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল স্বাস্থ্যমন্ত্রী ক্রিস্টিন এলিয়টের কার্যালয়। কিন্তু দ্রুত এ বিবৃতি সংশোধন করে বলা হয়, এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত আসছে না।

সিদ্ধান্তহীনতার বিষয়ে অটোয়াতে মঙ্গলবারের সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন করা হলে এজন্য হাসপাতাল প্রশাসকদের কাছ থেকে তথ্যের ঘাটতিকে দায়ী করেন প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড। তবে ঠিক কবে নাগাদ এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে সে দিনক্ষণ জানাননি তিনি। অন্টারিওতে কত সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মী ভ্যাকসিনেশনের বাইরে আছেন সে তথ্যও জানাতে পারেননি ডগ ফোর্ড।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সত্যি কথা বলতে এখনও আমি হাসপাতাল প্রশাসকদের কাছ থেকে উত্তরে অপেক্ষায় আছি। মহামারির সময়কালে তারা অবিশ্বাস্য সব কাজ করেছেন। কিন্তু আমাদের উত্তরের প্রয়োজন। কোনো কিছুর পরিমাপ ছাড়া আপনি তার ব্যবস্থাপনা করতে পারবেন না এবং তারা যদি আমাকে মূল্যায়নের জন্য সংখ্যা না দেন তাহলে এটা করা অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং হয়ে উঠবে।

অন্টারিওর সব হাসপাতালের প্রধান নির্বাহীসহ অংশীজনদের কাছে ১৫ অক্টোবর চিঠি লেখেন প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড। চিঠিতে সব স্বাস্থ্যকর্মীকে বাধ্যতামূলকভাবে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনলে এর প্রভাব কি হতে পারে হাসপাতাল নির্বাহীদের কাছে সে ব্যাপারে উত্তর জানতে চাওয়া হয়। উত্তর দেওয়ার জন্য অংশীজনদের ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles