21.9 C
Toronto
শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

সন্তানদের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে বাবা-মায়ের অবগত থাকাটা জরুরি

সন্তানদের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে বাবা-মায়ের অবগত থাকাটা জরুরি
কিচেনারে ফোর্ড ফেস্টে এক বক্তৃতায় শুক্রবার ফোর্ড বলেন এটা শিক্ষকদের বিষয় আমাদের শিশুদের শিক্ষঅ দেওয়ার দায়িত্ব শিক্ষকদের শিক্ষা বোর্ডের নয়

শিশুরা যখন কোনো সিদ্ধান্ত নেয় তখন বাবা-মাদের সে ব্যাপারে অবগত থাকাটা জরুরি বলে মন্তব্য করেছেন অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড। স্কুলে শিক্ষার্থীদের পছন্দমতো প্রোনাউন গ্রহণ নিয়ে চলমান বিতর্কের মধ্যে এই মন্তব্য করলেন তিনি।
কিচেনারে ফোর্ড ফেস্টে এক বক্তৃতায় শুক্রবার ফোর্ড বলেন, এটা শিক্ষকদের বিষয়।

আমাদের শিশুদের শিক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব শিক্ষকদের। শিক্ষা বোর্ডের নয়। আর শিশুরা কি করছে তা তা শোনার দায়িত্ব বাবা-মায়েদের; স্কুল বোর্ডের নয়। যদিও স্কুল বোর্ড এই মুহূর্তে কি করতে পারে সে ব্যাপারে আমি জানি।

- Advertisement -

স্কুলে শিক্ষার্থীদের ভিন্ন প্রোনাউন গ্রহণ নিয়ে এর আগে শিক্ষামন্ত্রী স্টিফেন লেচি যে মন্তব্য করেছিলেন তারই প্রতিধ্বনি শোনা গেল প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ডের কণ্ঠে। ২৮ আগস্ট লেচি বলেছিলেন, শিশুদের জীবনে কী ঘটছে বাবা-মায়েদের যে সে ব্যাপারে পুরোপুরি অবগত থাকতে হবে সেটা আমরা বুঝি। এর মধ্য দিয়ে আমি বোঝাতে চাইছি যে, এখানে স্বাস্থ্যের বিষয়টি জড়িত। আমি মনে করি বাবা-মায়েদের অধিকারের প্রতি আমাদের সম্মান দেখানো উচিত এবং এটা যে জীবন বদলে দেওয়া সিদ্ধান্ত সেটাকে আমাদের মান্যতা দিতে হবে। আমি এটাও বিশ^াস করি যে, এর সঙ্গে বাবা-মায়েদের সম্পৃক্ত হতে চাওয়া উচিত, যাতে করে তারা তাদের সন্তানদের পাশে দাঁড়াতে পারেন। আমার মনে হয় এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ নীতি এবং আমাদের অবশ্যই এটা সমুন্নত রাখতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী তার বক্তব্যের সারমর্ম করতে গিয়ে বলেন, শিশূদের জন্য স্কুল হতে হবে নিরাপদ। সেখানে যাতে বাড়ির পরিবেশ বজায় থাকে শিক্ষক ও স্কুল বোর্ডগুলোকে সেটা বিবেচনায় নিতে হবে। বিশেষ করে যেখানে অস্বাভাবিক পরিস্থিতির উদ্্েরক হয় এবং শিশুদের সম্ভাব্য ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দেয়।

সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, পরিচয় পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বাবা-মায়েদের অবগতি ও সম্মতি থাকাটা অপরিহার্য বলে বিশ্বাস করেন ৪৩ শতাংশ কানাডিয়ান। বাবা-মায়েদের এ ব্যাপারে কেবলমাত্র জানা থাকলেই চলবে বলে মনে করেন ৩৪ শতাংশ কানাডিয়ান। এটা শুধুই শিশুদের ব্যাপােের বলে মনে করেন সমীক্ষায় অংশ নেওয়া প্রায় ১৬ শতাংশ কানাডিয়ান।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles