6 C
Toronto
রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪

সুদানে আটকেপড়াদের ফেরত আনতে ব্যর্থ কানাডা

সুদানে আটকেপড়াদের ফেরত আনতে ব্যর্থ কানাডা
সুদানে যুদ্ধপরিস্থিতি খারাপের দিকে যাওয়ায় সেখানে আটকেপড়া এক কানাডিয়ান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে তিন দিনের ভয়াবহ ভ্রমণের জন্য নিজ দেশের সরকারকে দোষারোপ করেছেন

সুদানে যুদ্ধপরিস্থিতি খারাপের দিকে যাওয়ায় সেখানে আটকেপড়া এক কানাডিয়ান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে তিন দিনের ভয়াবহ ভ্রমণের জন্য নিজ দেশের সরকারকে দোষারোপ করেছেন। তিনি বলেছেন, অটোয়া আটকেপড়াদে উদ্ধারে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।
৪৯ বছর বয়সী হিশাম মোহাম্মদের ১৮ এপ্রিল অন্টারিওর ওয়েল্যান্ডে আসার কথা ছিল। কিন্তু সুদানের সেনাবাহিনী ও র‌্যাপিড সাপোর্ট ফোর্সেস নামে পরিচিত প্যারামিলিটারির মধ্যে সহিংসতা বৃদ্ধি পাওয়ায়ঢ তার ফ্লাইটটি বাতিল হয়ে যায়। সুদানের রাজধানী খার্তুম থেকে বেরিয়ে আসতে বিপজ্জনক পন্থা অবলম্বন করেন তিনি। খাবার ও পানি ফুরিয়ে যাওয়ার আশঙ্কার মধ্যে এই সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

মোহাম্মদ বলেন, এক সপ্তাহ আগের যে দিনে যুদ্ধ শুরু হয় ওই দিনই তিনি গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্সের কানাডিয়ান নাগরিকদের জন্য যে রেজস্ট্রি তাতে সাইন আপ করেন। কিন্তু এরপর আর কিছু শুনতে পারেননি। টানা তিন থেকে চারদিন রোজ গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডায় ফোন করলে প্রতিবারই তাকে নিরাপদ আশ্রয় খোঁজার পরামর্শ দেওয়া হয়। চতুর্থবার ফোন করার আমি সিদ্ধান্ত নিই যে তাদের কাছ কোনো ধরনের সহায়তা পাওয়া যাবে না। এরপর আমি সেখান থেকে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি এবং খার্তুম থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করি। শেষ পর্যন্ত সুদান থেকে বেরিয়েও আসি।

- Advertisement -

সুদান ও মিসরের মধ্যকার সীমান্ত থেকে টেলিফোনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন তিনি। সুদান থেকে মিসরে যেতে সাধারণত সাত ঘণ্টা সময় লাগে। কিন্তু মোহাম্মদের সময় লাগে তিন দিন। বাসে, পিকআপে ও ছোট যানবাহনে চেপে তাকে এই পথ পাড়ি দিতে হয়। এক জায়গায় তাকে রাত্রিযাপনও করতে হয়। মোহাম্মদ বলেন, আপনি যা পাবেন তাই নিয়ে নিন। ঈশ^রের কাছে শুকরিয়া যে, আমি নিরাপদে সুদান ছাড়তে পেরেছি।

যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যে কানাডাসহ বেশ কিছু দেশ তাদের নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনতে হিমশিম খাচ্ছে। অনেকেই তাদের বাড়িতে আটকা পড়েছেন। তাদের খাবারও ফুরিয়ে আসছে। সুদানের কাছ থেকে কানাডা কোনো ধরনের উদ্ধার সহায়তা নেবে কিনা জানতে চাইলে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডা।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles