12.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

টরন্টোতে চাঙ্গা হচ্ছে পর্যটন

- Advertisement -
টরন্টোর পর্যটন খাতে কোভিড-১৯ মহামারির তান্ডবের পর টরন্টোর অধিকাংশ বড় অনুষ্ঠান ফিরেছে

অবশেষে লোকজন ফিরতে শুরু করেছে। টরন্টোতে ফিরছে। এটাই কথা।

দুই টরন্টোর পর্যটন খাতে কোভিড-১৯ মহামারির তান্ডবের পর টরন্টোর অধিকাংশ বড় অনুষ্ঠান ফিরেছে। একইভাবে ফিরেছে দর্শনার্থীরাও বিশেষ করে কানাডার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। প্রবাসীদের কানাডায় ফেরাও চারগুন বেড়েছে। এদের অনেকেই পছন্দের স্থান হিসেবে টরন্টোকেই বেছে নিয়েছেন।

খুশির খবর হলো, কয়েক মাস ধরেই পর্যটন খাত ঘুরে দাঁড়াচ্ছে এবং এটা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। টরন্টো মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির টেড রজার্স স্কুল অব হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্টের পরিচালক ফ্রেডেরিক ডিমানশ বলেন, টরন্টোতে ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি খাতের ব্যবসা অবশ্যই লক্ষ্যণীয়ভাবে ফিরে এসেছে। বসন্তে শক্তিশালী পুনরুদ্ধারের ইঙ্গিত আমরা দেখেছি এবং গ্রীষ্মে হোটেলগুলোতে গত দুই বছরের তুলনায় অকুপেন্সি রেট বেশি দেখেছি। কানাডামুখী আন্তর্জাতিক ভ্রমণ এখনও সীমিত পর্যায়ে রয়েছে। কিন্তু ভ্রমণ ও শহরে থাকার ক্ষেত্রে কানাডিয়ানরা আর গত বছরের মতো ভীত নয়।

পর্যটন থেকে টরন্টোয় প্রতি বছর বিপুল অংকের আয় হয়। কিন্তু মহামারির সময়ে যারা ঘুরতে পছন্দ করেন তারা আর সেভাবে খরচ করেন নি। ডেসটিনেশন টরন্টোর ভাইস প্রেসিডেন্ট এন্ড্রু ওয়্যার বলেন, টরন্টোর মতো শহুরে গন্তব্যগুলোকে অন্য গন্তব্যগুলোর চেয়ে পিছিয়ে থাকতে দেখছি আমরা।

এর কারণ, অনেকেই মানুষের মধ্য থেকে বেরিয়ে উন্মুক্ত বড় পরিসরে যেতে চাইছেন। ওয়্যার বলেন, সঙ্গত কারণেই শহুরে গন্তব্যের চাহিদা কম। একই সময়ে একই গন্তব্যের জন্য অনেক মানুষের কাছে আমরা টিকেট বিক্রি করেছি। গত ১০০ বছরের মধ্যে ৯৮ বছরই এমনটা হয়েছে। কিন্তু দুই বছর ধরে মানুষ আর সেটা চাইছেন না। এমন নয় যে, তারা স্বাচ্ছন্দ বোধ করছেন না। বিষয়টা হলো কনসার্ট অথবা থিয়েটার অথবা সভা এবং কনভেনশনের মতো যেসব প্রয়োজনে লোকজন শহরে আসে তা পর্যাপ্ত পাওয়া যাচ্ছে না।

Related Articles

Latest Articles