4.2 C
Toronto
শনিবার, অক্টোবর ২৩, ২০২১

কানাডায় বাড়ছে ভ্যাকসিনেশনের গতি, বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা

ছবি/ আইপ্যাক কানাডা

কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ২০ হাজার ৮৯৩ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ২৩ হাজার ১৪১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯ লাখ ৩৭ হাজার ৪৫৬ জন। কানাডার প্রধান চারটি প্রদেশ ব্রিটিশ কলম্বিয়া, অন্টারিও, মন্টিয়ল এবং আলবার্টাতেও নতুন করে এ মহামারির সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। হঠাৎ করে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগে রয়েছে দেশটির সরকার। কর্তৃপক্ষ সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ বিধিনিষেধ মেনে চলার জন্য আবারও গুরুত্বসহকারে পরামর্শ দিয়েছে।

কানাডায় বর্তমানে প্রতি তিন থেকে চার সপ্তাহে নতুন করে এক লাখ মানুষ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হচ্ছেন। ১৩ মার্চের আগ পর্যন্ত সংখ্যাটি ছিল ৯০ হাজারের মতো। একই সঙ্গে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৬০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োগ শেষ করেছে কানাডা। এই মুহূর্তে কানাডা কোভিড-১৯ মহামারির ঠিক কোথায় দাঁড়িয়ে আছে সেটা বুঝতে দুটি ঘটনাই শঙ্কা জাগাচ্ছে। আলবার্টা জনস্বাস্থ্য বিভাগের চিফ মেডিকেল অফিসার ব্রাজিলে সনাক্ত হওয়া পি.১ ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়া তাৎপর্যবাহী। একদিকে দেশটি ভ্যাকসিনেশনের গতি বাড়াচ্ছে, অন্যদিকে অতিমাত্রায় সংক্রামক ভ্যারিয়েন্ট তৃতীয় ঢেউয়ের কথা স্বীকার করেছেন। এ অবস্থায় কিছু প্রদেশ জনস্বাস্থ্য বিধিবিধান কঠোর করেছে।

ব্রিটিশ কলাম্বিয়া শনিবার বিকালে দুই দিনে ২ হাজার ৯০ জন সংক্রমিত হওয়ার খবর দেয়। এর মধ্য দিয়ে কানাডায় মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এ নিয়ে শনিবার পর্যন্ত কানাডায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ১০ লাখ ১ হাজার ৬৫০ জনে।

অন্টারিওতে শনিবার নতুন করে ৩ হাজার ৯ জন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। আগের দিন আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩ হাজার ৮৯ জন। গত কয়েক দিনে কুইবেকের দৈনিক সংক্রমণও এক হাজারের ঘর অতিক্রম করেছে। শনিবার প্রদেশটিতে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১ হাজার ২৮২ জন।

ব্রিটিশ কলাম্বিয়া গত দুই দিনে সংক্রমণের আগের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। প্রদেশটিতে গত শনিবার ১ হাজার ৭২ এবং শুক্রবার ১ হাজার ১৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

এ অবস্থায় প্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আদ্রিয়ান ডিক্স ও চিফ মেডিকেল অফিসার ডা. বনি হেনরি নাগরিকদের তাদের কমিউনিটির মধ্যে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। তারা বলেন, লোকজনকে তাদের স্বাস্থ্য ইউনিটের বাইরে খুব বেশি যাতায়াত করতে দেখা যাচ্ছে এবং অনেকে ব্যক্তিগত সুরক্ষা ব্যবস্থাও গ্রহণ করছেন না। এতে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে। এ সংক্রমণ এড়ানো সম্ভব এবং কমিউনিটি ও অন্যদের সুরক্ষায় আমাদেরকে আমাদের অঞ্চলের মধ্যে থাকতে হবে।

- Advertisement - Visit the MDN site

Related Articles

- Advertisement - Visit the MDN site

Latest Articles