7.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৮, ২০২১

আমাদের আহাদ

- Advertisement -
আহাদ

আহাদ আমার বাল্যকালের বন্ধু আব্দুল মালিক সুমন যাকে আমরা সবাই সুনাই নামে ডাকি তার বড় ভাই জনাব আব্দুল খালিক লালুর ছেলে।

মিডিয়ায় কাজ করে বলে এলাকার মানুষের কাছে আহাদ খুবই জনপ্রিয়। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক প্রবাসী আহাদের শরীরে দুই হাজার বিশ সালে এক বিরল রোগ দেখা দিল। অনেক পরীক্ষা নীরিক্ষার পর বিশেষজ্ঞ ডাক্তার জানালেন – এই রোগটি নতুন৷ সারা পৃথিবীতে এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা হাতে গোনা কয়েকজন৷ একেবারে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে আহাদের শরীরে উন্নতি ফিরে এসেছিল। আহাদের পরিবারের সঙ্গে আমরাও আশায় বুক বেঁধেছিলাম। কিন্তু আমাদের আশা সকল ক্ষেত্রে সফল হয় না। অনেকটা আশার স্বপ্ন দেখিয়ে আমাদের প্রিয় আহাদ আজ নিউইয়র্কের লঙ আইল্যান্ডস্থ একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছে। ইন্নাল ইল্লা হি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজেউন। আহাদ শুধু আমার বাল্যকালের প্রিয় বন্ধুর স্নেহের ভাতিজাই নয়, সে আমার ছোট ভাই ইকবালের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আমার পরিবারের সবার কাছে এক প্রিয়মুখ৷

- Advertisement -

আহাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আমার বন্ধু সুনাই আটলান্টা থেকে নিউইয়র্ক ছুটে এসেছে ভাতিজার কাছে। পাশে থেকে বড় ভাই ও তাঁর পরিবারের সবাইকে সাহস যুগিয়েছে। আমি আহাদকে দেখার জন্য উদগ্রীব ছিলাম। গতকালই সুমন আমাকে ভিডিও কল দিয়ে আহাদের মুমূর্ষু চেহারাটা দেখিয়েছে। হাসপাতালের বিচানায় অবচেতন আহাদের মুখটা দেখে আমার বুক কেঁপে উঠেছিল! আজ সে চিরতরে এই পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছে! আমি আহাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করি। মহান আল্লাহতালা যেন আহাদকে বেহেশত দান করেন এই প্রার্থনা করি।

সুনাইকে আমি কেমন করে সান্ত্বনা দেবো! শুধু সমবেদনা লিখে দেওয়াটাই কি যথেষ্ট! আমরা কত অসহায়! হে মহামহিম, আমাদেরকে ক্ষমা করুন!

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles