9.6 C
Toronto
বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪

রাম মন্দিরে আড়াই কোটি টাকা দিলেন আম্বানি, ১০১ কেজি সোনা দিল কে?

রাম মন্দিরে আড়াই কোটি টাকা দিলেন আম্বানি, ১০১ কেজি সোনা দিল কে?
রাম মন্দির

রাম মন্দিরের অভিষেক অনুষ্ঠান ভারত জুড়ে আলোচিত হয়েছে। আড়ম্বর এই অনুষ্ঠানে পুরো অযোধ্যা শহরকে সাজানো হয় জাঁকজমকপূর্ণ করে। ঐতিহাসিক সেই মুহূর্তের সাক্ষী হয়েছিলেন দেশটির বড় বড় ব্যক্তিত্বরা। অযোধ্যায় নির্মিত রাম মন্দিরের জন্য ভারত ও বিশ্বের কোটি কোটি ভক্ত নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী দান করেছেন।

জানা গেছে, রাম মন্দির নির্মাণে কোনো রাজ্যের সরকারই টাকা দেয়নি, বরং পুরোটাই ভক্তদের দেওয়া অনুদানে নির্মাণ করা হয়েছে। এবার সামনে আসছে বিভিন্ন ভক্তের দেওয়া অর্থের পরিমাণের তথ্য। সবচেয়ে বেশি অর্থের দান দেওয়ার ক্ষেত্রে নাম উঠেছে গুজরাটের অপেক্ষাকৃত অ-নামী এক শিল্পপতির। রিলায়েন্সের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি দিয়েছেন ২ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

- Advertisement -

জানেন কি রাম মন্দিরের জন্য সবচেয়ে বড় অনুদান কে দিয়েছেন? বড় অনুদান দিয়েছেন সুরাটের হিরে ব্যবসায়ী লাখিপরিবার। দিলীপ কুমার ভি. লাখির পরিবার, সুরাটের অন্যতম বড় হিরা ব্যবসায়ী, ১০১ কেজি সোনা দান করেছেন। এটি রাম মন্দির ট্রাস্টের প্রাপ্ত সবচেয়ে বড় অনুদান। এই ১০১ কেজি সোনা ব্যবহার করা হয়েছে রাম মন্দিরের দরজা, গর্ভগৃহ, ত্রিশূল, ডমরু এবং স্তম্ভগুলিকে পালিশ করতে।

তালিকায় দ্বিতীয় নাম গল্পকার এবং আধ্যাত্মিক গুরু মোরারি বাপু, যিনি রাম মন্দিরের জন্য ১১.৩ কোটি টাকা দান করেছেন। একই সময়ে, গুজরাটের আরেক হিরা ব্যবসায়ী গোবিন্দভাই ঢোলাকিয়া ১১ কোটি টাকা দান করেছেন। আবার, পাটনার মহাবীর মন্দির এই খাতে নির্মাণের জন্য ১০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অনুষ্ঠানে বলেন, এটি একটি নতুন যুগের আবির্ভাবকে চিহ্নিত করে। আগামী ১০০০ বছরের জন্য একটি শক্তিশালী ভারতের ভিত্তি তৈরি করতে রাম মন্দির উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করবে। রাম মন্দির মোট ৩৯২টি স্তম্ভ এবং ৪৪টি দরজা দ্বারা নির্মিত। মন্দিরের স্তম্ভ এবং দেওয়ালগুলি হিন্দু দেবতা এবং দেবদেবীর জটিল ভাস্কর্য চিত্র দিয়ে সাজান হয়েছে। প্রধান গর্ভগৃহে ভগবান শ্রী রামের শৈশব রূপ (শ্রী রামলালার মূর্তি) স্থাপন করা হয়েছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles