ফেঁসে যাচ্ছেন শোয়েব আখতার

- Advertisement -
পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার

সময়ের সঙ্গে আলোচনা বাড়ছিল পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার ও পাকিস্তানের সরকারি টিভি চ্যানেল পিটিভির সঞ্চালক ড. নোমান নিয়াজের ঘটনা নিয়ে। এরই মধ্যে লাইভ শোতে শোয়েবকে অপমানের জেরে চাকরিচ্যুতসহ বড় শাস্তি অপেক্ষা করছে নিয়াজের জন্য। তবে এবার উল্টো ফেঁসে যাচ্ছেন শোয়েবও। রেগে গিয়ে লাইভ অনুষ্ঠান থেকে বের হয়ে যাওয়ায় তার কাছে মোটা অঙ্কের ক্ষতিপূরণ চেয়েছে পিটিভি। অর্থাৎ ১০০ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছে।

টেলিভিশনটির বিরুদ্ধে শোয়েব আখতারও আইনি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি অত্যন্ত হতাশ। আমার সম্মান রক্ষায় ব্যর্থ হওয়ার পর পিটিভি এখন ক্ষতিপূরণ চেয়ে নোটিশ পাঠিয়েছে। তবে তাদের জানাতে চাই, আমি একজন লড়াকু। এ লড়াই চালিয়ে যাব।

- Advertisement -

বিশ্বকাপের বিশ্বমঞ্চে ভারতকে প্রথমবারের মতো হারানোর পর বাবর আজমদের দুরন্ত পারফরম্যান্স ও কোহলিদের ব্যর্থতা নিয়ে গণমাধ্যমে দেদারসে আলোচনা চলছিল। এরই মধ্যে গতিতারকা শোয়েব আখতারের সঙ্গে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঘটে। লাইভ শো থেকে তাকে বেরিয়ে যেতে বলেন পিটিভির সঞ্চালক ড. নোমান নিয়াজ।

বিশ্বকাপে কোহলিদের বিপক্ষে দুর্দান্ত বোলিং করে ম্যাচসেরা হন পাক পেসার শাহিন আফ্রিদি। জাতীয় দলে আরেক বোলার হারিস সোহেলের উত্থানের কথা বলছিলেন শোয়েব। কিন্তু বক্তব্যের মাঝেই তাকে থামিয়ে দেন সঞ্চালক ডা. নওমান নিয়াজ।

- Advertisement -

বলেন, আপনি একটু কর্কশভাবে কথা বলছেন। যদিও বলতে চাইছি না, তবে নিজেকে অতিরিক্ত স্মার্ট মনে করলে এখান থেকে বেরিয়ে যেতে পারেন। লাইভেই এ কথা আপনাকে বলছি।

- Advertisement -

সে অপমানের পর লাইভ থেকে বেরিয়ে যান শোয়েব। পরে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করে পুরো বিষয়টি নিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেন শোয়েব। বলেন, ঘটনার অনেকগুলো ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। তাই জানাতে চাই, ডা. নৌমান যথেষ্ট অভদ্র আচরণ করে আমায় শো থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন। যা অত্যন্ত অপমানজনক।

বিশেষ করে যেখানে ভিভ রিচার্ডস, ডেভিড গাওয়ারের মতো কিংবদন্তিরা উপস্থিত ছিলেন। লাখো মানুষ শো-টা দেখছিলেন। বিষয়টা হালকা করারও চেষ্টা করি। যাতে তিনিও ক্ষমা চেয়ে নিয়ে ফের স্বাভাবিক ছন্দে শো চালিয়ে যান। কিন্তু যা হলো, তা দুর্ভাগ্যজনক।

এদিকে পুরো ঘটনায় বেশ বিরক্ত হয়েছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের ১৯৯২ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ও দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। নোমানের স্পর্ধা দেখে হতবাকও হন তিনি। তবে এতকিছুর পরও নতুন করে পিটিভির ক্ষতিপূরণ দাবি বিষয়টি আরও খারাপের দিকেই নিয়ে যাচ্ছে বলে মত দেশটির গণমাধ্যমকর্মীদেরও।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles