22.3 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের মধ্যে স্থায়ী শান্তি সম্ভব নয় বলে মনে করে সিংহভাগ কানাডিয়ান

ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের মধ্যে স্থায়ী শান্তি সম্ভব নয় বলে মনে করে সিংহভাগ কানাডিয়ান
প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও কানাডিয়ান সরকার হামাসের কর্মকা কে সন্ত্রাসী হামলা আখ্যা দিয়ে এর সমালোচনা করেছেন

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয় বলে মনে করে সিংহভাগ কানাডিয়ান। লেজার পরিচালিত নতুন এক সমীক্ষায় এমনটাই উঠে এসেছে।

সমীক্ষায় অংশ নেওয়া অর্ধেকের কিছু বেশি কানাডিয়ান বলেছেন, স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। তবে এক-পঞ্চমাংশের মতে, এ সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানে পৌঁছানো সম্ভব।

- Advertisement -

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয় বলে যারা মনে করেন তাদের ৬২ শতাংশ চলমান সংঘাত সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখেন।

সমীক্ষার জন্য প্রশ্নপত্র তৈরি করে লেজার। এতে সহযোগিতা করে অ্যাসোসিয়েশন ফর কানাডিয়ান স্টাডিজ। ১৩ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ১ হাজার ৫৪৮ জন কানাডিয়ানের কাছে এসব প্রশ্ন রাখা হয়।
সমীক্ষায় অংশ নেওয়া দুই-তৃতীয়াংশ বলেছেন, পরিস্থিতির দিকে তারা ঘনিষ্ঠ নজর রাখছেন। আর অর্ধেক বলেছেন, এই সহিংসতা সম্পর্কে তাদের ভালো বোঝাপড়া রয়েছে।

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘাত দশকের পর দশক ধরে চলছে, যা মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীলতার পেছনে বড় ধরনের ভূমিকা রাখছে।

গাজা ভূখ- হচ্ছে ইসরায়েলের পশ্চিম সীমান্তে সরু ভূখন্ড, যার আয়তন মন্ট্রিয়লের সমান। ২০০৭ সাল থেকে গাজা ভূখ- নিজেদের দখলে রেখেছে হামাস। ২০০২ সাল থেকে গ্রুপটিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে দেখে আসছে কানাডা। হামাসের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ার পর ইসরায়েল ও মিশর উভয়েই গাজার ওপর অবরোধ আরোপ করেছে। এর ফলে ওই অঞ্চলে লোকজন ও পণ্যের চলাচল নিয়ন্ত্রিত হয়ে পড়েছে। ভূখ-টিতে বসবাস করে ২০ লাখের মতো মানুষ।

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও কানাডিয়ান সরকার হামাসের কর্মকা-কে সন্ত্রাসী হামলা আখ্যা দিয়ে এর সমালোচনা করেছেন। সেই সঙ্গে এ-ও বলেছেন যে, আত্মরক্ষার অধিকার ইসরায়েলের রয়েছে। তবে অটোয়া সম্প্রতি এটাও বলেছে যে, গাজায় আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হোক এটাই প্রত্যাশা। গাজায় সহায়তা পৌঁছানোর সুযোগ দিতে ইসরায়েল, মিশর ও অন্যদের প্রতিও আহ্বান জানিয়েছে কানাডা। সেখানে এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে লোকজন প্রয়োজনীয় সামগ্রী ও বিদ্যুৎ থেকে বঞ্চিত রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি জোলি বলেছেন, গাজায় যা ঘটছে তা নিয়ে তিনি খুবই উদ্বিগ্ন। আমি এটা বহুবার বলেছি যে, বসবাসের জন্য গাজা বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ জায়গা।

লেজারের সমীক্ষায় অংশ নেওয়া ৪০ শতাংশ কানাডিয়ান কানাডার ইসরায়েলকে সমর্থন সঠিক বলে বিশ^াস করেন। ১০ শতাংশ বলেছেন, কানাডার ইসরায়েলকে এতটা সমর্থন করা উচিত নয়। ১৬ শতাংশ বলেছেন, কানাডা ইসরায়েলকে খুব বেশি সমর্থন দিচ্ছে। এক-তৃতীয়াংশের কিছু বেশি অর্থাৎ ৩৪ শতাংশ এ ব্যাপারে কোনো মতামত দিতে চাননি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles