15.7 C
Toronto
রবিবার, মে ১৯, ২০২৪

হঠাৎ বিশ্বের সব থেকে বিত্তশালী, অতঃপর ২ মিনিটেই স্বপ্নভঙ্গ!

হঠাৎ বিশ্বের সব থেকে বিত্তশালী, অতঃপর ২ মিনিটেই স্বপ্নভঙ্গ!
ক্রিস রেনল্ডস

ক্রিস রেনল্ডস, একজন মার্কিন নাগরিক। দেশটির পেনসিলভানিয়ার বাসিন্দা তিনি। পেশায় গাড়ির পার্টস বিক্রেতা। মাত্র ২ মিনিটের জন্য বিশ্বের সব থেকে বিত্তশালী মানুষ হয়েছিলেন তিনি। হয়ে উঠেছিলেন লক্ষ কোটি ডলারের মালিক। কিন্তু ২ মিনিটেই স্বপ্নভঙ্গ হয় তার।

২০১৩ সালের ঘটনা এটি। বাড়িতে বসে এক মনে টিভি দেখছিলেন ক্রিস। হঠাৎ তার মুঠোফোনে একটি মেসেজ আসে। অ্যাকাউন্টে ডলার ঢোকার মেসেজ। কিন্তু ডলারের পরিমাণ দেখে প্রথমে বিশ্বাস না হওয়ায়, তিনি ফোনের একটি লেনদেন সংক্রান্ত অ্যাপ খুলে দেখেন।

- Advertisement -

ক্রিস অ্যাপ খুলে দেখেন, তার অ্যাকাউন্টে রয়েছে ৯২ কোয়াড্রিলন ডলার ( ১ কোয়াড্রিলিয়ন সমান এক হাজার বিলিয়ন)। সেই মুহূর্তে তিনিই ছিলেন বিশ্বের সব থেকে বেশি অর্থের মালিক।

এর আগে ক্রিসের ওই অ্যাকাউন্টে মাত্র ১৪০ ডলার ছিল, যা অনেক দিন ধরে সঞ্চয় করছিলেন তিনি।

অ্যাকাউন্টে এত ডলার ঢোকায় প্রথমে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন মধ্যবয়সী ক্রিস। একটু ধাতস্থ হয়ে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই আনন্দে চিৎকার শুরু করেন।

ক্রিসের চিৎকার শুনে তার পরিবারের সদস্যরা ছুটে আসেন। তাকে ওই ভাবে উচ্ছ্বাস করতে দেখে পরিবারের সদস্যরাও অবাক হয়ে যান। কিছুটা সামলে নিয়ে পুরো ঘটনা পরিবারকে জানান ক্রিস।

কিন্তু ক্রিস জানতেন না, যে গতিতে তার অ্যাকাউন্টে ডলার ঢুকেছিল, সেই গতিতেই তা বেরিয়ে গেছে।

তার অ্যাকাউন্টে কত ডলার রয়েছে তা পরিবারকে দেখাতে লেনদেন সংক্রান্ত ওই অ্যাপ খোলেন ক্রিস। কিন্তু অ্যাপ খুলে দ্বিতীয় ধাক্কা খান তিনি। তিনি দেখেন, তার অ্যাকাউন্ট থেকে আবার সব ডলার ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পড়ে রয়েছে সেই ১৪০ ডলার।

ক্রিসের পরিবার তার কথায় বিশ্বাস না করায় তিনি লেনদেন সংক্রান্ত নথি বের করে আনেন। সেখানে দেখা যায়, সত্যিই তার অ্যাকাউন্টে ওই ঢলার ঢুকেছিল। কিন্তু কোনও কারণে আবার সেই তা ফেরত নিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সেই লেনদেনের নথির ছবি ফেসবুকে পোস্টও করেন ক্রিস। কারও কাছে এই অদ্ভুত ঘটনার কোনও যুক্তিগ্রাহ্য উত্তর রয়েছে কি না তা জানার জন্যই তিনি পোস্টটি করেছিলেন।

ওই লেনদেন সংক্রান্ত অ্যাপের সঙ্গেও যোগাযোগ করেন তিনি। আর তার পরেই ক্রিসের ‘অর্থরহস্যে’র যবনিকা হয়।

সংস্থাটির পক্ষ থেকৈ জানানো হয়, একটি প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে তার অ্যাকাউন্টে ওই অর্থ ঢুকেছে বলে দেখানো হয়েছিল। তবে পরে ভুল শুধরে নেওয়া হয়।

প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে মাত্র ২ মিনিটের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হয়ে উঠেছিলেন ক্রিস। এত ডলার দিয়ে কী করবেন, তা-ও তিনি ওই ২ মিনিটের মধ্যেই নাকি ভেবে নিয়েছিলেন।

ক্রিস পরে জানান, তিনি জীবনে এত অর্থ একসঙ্গে দেখেননি। দেখা তো দূরের কথা, অত অর্থ কারও কাছে থাকতে পারে, সেই ধারণাও ছিল না। ওই ঘটনার আগে তার অ্যাকাউন্টে সর্বোচ্চ হাজার ডলার ছিল। যে অর্থ তিনি গাড়ি বিক্রি করে পেয়েছিলেন।

সংবাদমাধ্যম ‘ফিলাডেলফিয়া ডেইলি’র সঙ্গে সাক্ষাৎকারে ক্রিস জানিয়েছিলেন, ওই অর্থ সত্যি সত্যি তার অ্যাকাউন্টে থাকলে তিনি তা দিয়ে সবার প্রথমে একটি বেসবল ক্লাব কিনতেন।

তবে এই ভুলের কারণে ক্রিসকে ‘ক্ষতিপূরণ’ দিতে চেয়েছিল ওই লেনদেন সংক্রান্ত অ্যাপ। তারা ক্রিসকে জানিয়েছিল, ক্রিস চাইলে মোটা অঙ্কের অর্থ তারা কোনও বেসরকারি সংস্থাকে দান করতে পারেন। তবে ক্রিস নাকি কোনও উত্তর দেননি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles