21.3 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪

‘বুশরাকে অবৈধ বিয়ে’, নতুন বিপদে ইমরান খান!

‘বুশরাকে অবৈধ বিয়ে’, নতুন বিপদে ইমরান খান!
ইমরান খান ও তার স্ত্রী বুশরা খান

ফের বিপাকে পড়লেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক–ই–ইনসাফ দলের চেয়ারম্যান ইমরান খান। গতকাল বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (এডিএসজে) ইসলামাবাদ, মুহাম্মদ আজম খান এক ঘোষণায় জানান বুশরা বিবির সঙ্গে ইমরান খানের অবৈধ বিয়ের মামলা গ্রহণযোগ্য।

চলতি বছরের এপ্রিলে ইসলামাবাদের একটি আদালতে ইমরান ও বুশরা বিবির বিয়ে পড়ানোর দায়িত্ব পালনকারী মুফতি মোহাম্মদ সাঈদ দাবি করেন, ইমরান খান যখন বুশরা বিবিকে বিয়ে করেন, তখন তার ইদ্দতকালীন (তালাক বা স্বামীর মৃত্যুর পর নারীদের ধর্মীয় বিধানমতে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বিয়ে থেকে বিরত থাকা) সময় পার হয়নি।

- Advertisement -

ইসলামাবাদের একটি স্থানীয় আদালতে ১২ এপ্রিল মুফতি সাঈদ তার বক্তব্য রেকর্ড করার সময় এমন দাবি করেন। বুশরা বিবির ইদ্দতের সময় পার হওয়ার আগেই ইমরান খানের সঙ্গে তার বিয়ে নিয়ে ইসলামাবাদের একটি আদালতে পিটিশন করা হয়েছে।

পরবর্তীতে ইসলামাবাদের দেওয়ানি আদালত এই পিটিশনকে অগ্রহণযোগ্য বলে ঘোষণা করে। তবে শেষমেশ গতকাল এ রায় খারিজ করে দিয়েছেন এডিএসজে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইমরানের বিরুদ্ধে মুহম্মদ হানিফ এই পিটিশনটি দাখিল করেছেন। তিনি দাবি করেন, ২০১৭ সালের নভেম্বরে বুশরা বিবির তালাক হয় এবং তিনি ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি ইদ্দতকালীন সময়ে ইমরান খানকে বিয়ে করেন। এটি শরিয়া ও ইসলামবিরোধী।

২০১৮ সালে ইমরান খান ও বুশরা বিবির বিয়ের দায়িত্ব সম্পন্ন করার কাজে নিয়োজিত ছিলেন মুফতি মোহাম্মদ সাঈদ। তিনি বলেছেন, বুশরা বিবির ইদ্দতকালে এ বিয়ে হয়েছে।

পাকিস্তানের প্রভাবশালী পত্রিকা ডনকে সাঈদ সেই সময় বলেছিলেন, ইমরান খান ও বুশরা বিবি নিছক একটি ভবিষ্যদ্বাণীর কারণে ইচ্ছাকৃতভাবে অবৈধ এবং অনৈসলামিক মিলনে প্রবেশ করেছেন। ইমরান খান বিশ্বাস করেছিলেন তিনি ২০১৮ সালে নববর্ষের দিনে বিয়ে করলে প্রধানমন্ত্রী হবেন।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles