3.4 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২২

ক্যাফেটু প্রোগ্রামের ব্যাপারে জনমত চায় টরন্টো

ক্যাফেটু প্রোগ্রামের ব্যাপারে জনমত চায় টরন্টো
মেয়র জন টরি বলেছেন, গত তিন বছর ধরে ক্যাফেটু ছিল একটি স্থানান্তরধর্মী প্রোগ্রাম, যা আমাদের রাস্তাকে স্বাভাবিক রেখেছে এবং নজিরবিহীন অনিশ্চয়তার মধ্যে রেস্তোরাঁ শিল্পকে সহায়তা করেছে

সামার প্যাশিও প্রোগ্রামের ব্যাপারে জনগণের মতামত চাইছে টরন্টো সিটি কর্তৃপক্ষ। যাতে করে আগামী বছর ও তৎপরবর্তী বছরগুলোতে উদ্যোগটি আরও বেশি উন্নত হয়।

সিটি কর্তৃপক্ষ ২ নভেম্বর রেস্তোরাঁ পরিচালক, গ্রাহক ও সাধারণ নাগরিকের জন্য জরিপকাজ শুরু করেছে, যাতে কোভিড-১৯ মহামারির সময় চালু করা ক্যাফেটু উদ্যোগের ব্যাপারে তাদের মতামত জানা যায়।

- Advertisement -

মেয়র জন টরি বলেছেন, গত তিন বছর ধরে ক্যাফেটু ছিল একটি স্থানান্তরধর্মী প্রোগ্রাম, যা আমাদের রাস্তাকে স্বাভাবিক রেখেছে এবং নজিরবিহীন অনিশ্চয়তার মধ্যে রেস্তোরাঁ শিল্পকে সহায়তা করেছে। এই সমীক্ষার মাধ্যমে সংগৃহীত মতামতগুলো আমি শুনতে চাই। আমি জানি যে, সামনের বছরগুলোতে কর্মসূচিটির উন্নয়নে এটা সাহায্য করবে।

সমীক্ষার ফলাফল সিটি কর্তৃপক্ষের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। সিটি কর্মীরা বলছেন, কর্মসূচির নীতিমালা ও মানদ- নির্ধারণের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণে সমীক্ষাটি সহায়তা করবে। তারা জানান, ২০২১ সালেও এ ধরনের ক্যাফেটু সমীক্ষায় ১০ হাজার মানুষের মন্তব্য পাওয়া গিয়েছিল। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৯১ শতাংশ টরন্টোবাসী সম্প্রসারিত সাইডওয়াক ও কার্ব লেনে ভবিষ্যতে ক্যাফে চালু করার পক্ষে মত দিয়েছিলেন।

প্যাশিও প্রোগ্রাম প্রথম শুরু হয় ২০২০ সালের জুনে। এর মাধ্যমে সমস্যায় থাকা রেস্তোরাঁ ও বারগুলোকে সাইডওয়াক ও কার্ব লেনে প্যাশিও চালুর অনুমতি দেওয়া হয়, যাতে করে ভাইরাসের সংক্রমণ হ্রাসে তারা শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারে। সার্বিক সাফল্যের পর ক্যাফেটুকে নগরীর স্থায়ী কর্মসূচি করার পক্ষে ২০২১ সালের নভেম্বরে ভোট দেন সিনি কাউন্সিলররা। পাশাপাশি প্রস্তাবিত কার্ব লেন ক্যাফে কর্মসূচিতে পরিবর্তন নিয়ে ২০২৩ সালের শুরুর দিকে প্রতিবেদন সিটি কর্মীদের প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।

যদিও চলাচল ও যানজটের ওপর কর্মসূচিটির প্রভাব নিয়ে অনেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। কিছু ইভেন্ট প্রস্তুতকারীরও মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে কর্মসূচিটি। এই গ্রীষ্মে ক্যাফেটু কর্মসূচি ১ হাজার ২০০ এর বেশি রেস্তোরাঁ ও বারকে সাহায্য করেছে বলে জানিয়েছে সিটি কর্তৃপক্ষ। তারা বলছে, ৮০ শতাংশের বেশি কার্ব লেন স্থাপনা এরই মধ্যে সরিয়ে ফেলা হয়েছে এবং ৭ নভেম্বরের মধ্যে বাকি স্থাপনাও সরিয়ে ফেলার কথা।

This article was written by Sohely Ahmed Sweety as part of the LJI.

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles