22.7 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

‘ওর ঠোঁট তখন নীল হয়ে গেছে, সে কাঁপছিল’

- Advertisement -
ছবি সংগৃহীত

দুজনেই ছিলেন স্টারকিড। বর্তমানে তারা নিজেরাই বলিউড তারকা। সিনেমার নায়িকা তারা। এ দুই নায়িকা হলেন – জাহ্নবী কাপুর ও সারা আলি খান।

দুজনেরই বলিউড অভিষেক ২০১৮ সালে। ‘ধড়ক’ ও ‘কেদারনাথ’ দিয়ে হিন্দি ছবিতে পথচলা শুরু তাদের।

ব্যক্তিগত জীবনে দুজনই ঘনিষ্ঠ বন্ধু। জিম, পার্টি থেকে যেকোনো অনুষ্ঠানে এমনকি একসঙ্গে দেশ-বিদেশে ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন তারা।

আর এমনই একসঙ্গে ঘুরতে গিয়ে কয়েকবার মরতেও বসেছিলেন দুজন। একবার নাকি মাত্র ৬ হাজার রুপি বাঁচাতে গিয়ে প্রাণটাই হারাতে বসেছিলেন জাহ্নবী-সারা।

জনপ্রিয় চ্যাট শো ‘কফি উইথ করণ’-এর নতুন সিজনের একটি পর্বে একসঙ্গে হাজির হয়ে সে কথাই জানালেন জাহ্নবী ও সারা।

জাহ্নবী জানালেন, বছর কয়েক আগে কেদারনাথ ঘুরতে গিয়ে প্রচণ্ড ঠাণ্ডাতেও এমন এক হোটেলে ওঠেন দুজন যেখানে কোনো হিটারের ব্যবস্থা ছিল না। আর সারার বুদ্ধিতে পয়সা বাঁচাতে গিয়ে প্রচণ্ড ঠাণ্ডাতেও সেই হোটেলে ওঠেন তারা। পরে কেদারনাথের ঠাণ্ডায় তাদের প্রাণ যায় যায় অবস্থা হয়।

ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে করণকে জাহ্নবী বলেন, ‘দুটি থার্মাল, একটি পাফার জ্যাকেট, তিনটি শাল, দুই ট্রাক প্যান্ট নিয়ে কেদারনাথ গিয়েছিলাম। ওই রাতে আমি সব কটি পরেও রীতিমতো ঠাণ্ডায় কাঁপছিলাম। সারা যখন বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করে হোটেলে ফেরে, ওর ঠোঁট তখন নীল হয়ে গেছে, সে কাঁপছিল। মাইনাস সাত ডিগ্রি তাপমাত্রায় রুম হিটার ছাড়া থাকাটা ভয়াবহ অভিজ্ঞতা। ওই হোটেলের বাথরুমের অবস্থায় ছিল শোচনীয়। মনে হচ্ছিল বাথটাবে বসলেই যেন ভেঙে পড়বে।’

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles