19.2 C
Toronto
সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২

বাংলাদেশে আসার পথে সামরিক সরঞ্জামবাহী উড়োজাহাজ গ্রিসে বিধ্বস্ত

- Advertisement -

সার্বিয়ার বানানো অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামবাহী একটি উড়োজাহাজ বাংলাদেশে আসার পথে গ্রিসের উত্তরাঞ্চলে বিধ্বস্ত হয়েছে। ইউক্রেনীয় কার্গো বিমানটি গ্রিসের কাভালা শহরের কাছে বিধ্বস্ত হয়।

রবিবার সার্বিয়ার কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে স্থানীয় সময় শনিবার দিবাগত গভীর রাতে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

বার্তা সংস্থাটি বলেছে, ওই কার্গো বিমানে সার্বিয়ার তৈরি সাড়ে ১১ মেট্রিক টন সামরিক সরঞ্জাম ছিল। বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এসব পণ্যের ক্রেতা।

সার্বিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নেবোসা স্টেফ্যানোভিচ বরাত দিয়ে রয়টার্স বলেছে, বিধ্বস্ত বিমানটিতে মর্টার শেল এবং প্রশিক্ষণের শেল ছিল। বিধ্বস্ত উড়োজাহাজটি সার্বিয়ার কোম্পানি ভ্যালির মালিকানাধীন ছিল।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভ্যালি কোম্পানিটি সামরিক সরঞ্জাম এবং অন্যান্য প্রতিরক্ষা পণ্যের বৈদেশিক বাণিজ্যিক কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য নিবন্ধিত একটি বাণিজ্যিক সংস্থা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর—আইএসপিআর থেকে ঢাকা টাইমসকে জানানো হয়, ডাইরেক্টরেট জেনারেল অফ ডিফেন্স পারচেজ তথা ডিজিডিপি ক্রয় চুক্তির আওতায় ওই চালান আনা হচ্ছিল। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সার্বিয়া হতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ—বিজিবির জন্য ওই চালানে মর্টার শেল ছিল।

সামরিক সরঞ্জামবাহী ওই বিমানে কোনো অস্ত্র ছিল না এবং চালানটি বিমার আওতাভুক্ত বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।

এদিকে গ্রিসের কর্তৃপক্ষের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, ওই বিমানটিতে আটজন ক্রু ছিলেন। বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় সবাই নিহত হয়েছেন। নিহত সব ক্রুই ইউক্রেনের নাগরিক বলে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

কাভালা শহরের যে এলাকায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানকার আশেপাশের বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে বের না হওয়ার পাশাপাশি দরজা জানালা বন্ধ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে। বিমান বিধ্বস্তের ঘটনা তদন্ত করছে গ্রিসের স্থানীয় প্রশাসন।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles