11.4 C
Toronto
শুক্রবার, মে ২০, ২০২২

আমাদের কাজী আনোয়ার হোসেন

- Advertisement -
আমাদের কাজী আনোয়ার হোসেন - The Bengali Times
কাজী আনোয়ার হোসেন

আমার আলমারী ভর্তি এখনো অনেক মাসুদ রানা, কুয়াশা, দস্যু বনহূরের বই রয়েছে। আমাদের তারুণ্যে এবং যৌবনে এগুলো পড়ে আমাদের অনেকেরই হিরো হবার সাধ জেগেছে। দস্যু বনহূর এবং মাসুদ রানা নামে চলচ্চিত্রও তৈরী হয়েছে। আসুন দেখি এসব কল্প কাহিনী কেন এত জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। স্বল্প কথায় আমাদের সমাজ তথা পুরো দেশটা একটা বৈষম্যপূর্ণ সমাজ এবং দেশ। জোর যার নীতি এবং সম্পদ তার। এক শ্রেণীর লোক জোর করে অবৈধভাবে সম্পদের পাহাড় গড়েন। ফলে ক্ষমতাও তার হাতে চলে আসে। অথবা বলা যায় অবৈধ ক্ষমতার ফলে অবৈধ সম্পদের মালিক হয়ে যান। আর এখন যার সম্পদ এবং ক্ষমতা আছে তিনিই আবার নীতি কথা বলেন, এক সময়ের চোর ডাকাতেরাও আজকাল নিজের বা বাপ মা’র নামে শিক্ষা বা সমাজসেবা মুলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। নিজেরা অন্যায় করে বড় হলেও অন্যকে নৈতিকতার শিক্ষা দিয়ে থাকেন। দস্যু বনহূর বইটি জনপ্রিয়তা পেয়েছিল কারণ বনহুর রাতের বেলায় বের হয়ে চোরাচালানি কালোবাজারি করে রাতারাতি বড়লোক হওয়া ব্যক্তির বাড়ী থেকে ডাকাতি করে অর্থ সম্পদ ছিনিয়ে এনে গরীব মানুষের মাঝে বিলিয়ে দিত।

ফলে স্বাভাবিকভাবেই বইটি পড়ে বা সিনেমাটি দেখে হলভর্তি সাধারন মানুষ হাততালি দিত। মাসুদ রানাও অনেক জটিল সমস্যার সমাধান করে ফেলতো, পৃথিবীর যে প্রান্তেই অপরাধী থাকুক না কেন সে অপরাধী বা খুনীকে ধরে ফেলতো বা মেরে ফেলতো। তাকে সংগ দিত সুন্দরী সোহানা, উপরের সব ঝামেলা দেখতেন কিংবা মিশনে পাঠাতেন যতদুর মনে পড়ে বস রাহাত খান। প্রশ্ন হলো একটি সমাজে দস্যু বনহুর কিংবা মাসুদ রানাদের মত চরিত্র জনপ্রিয় হয় কেন? উত্তর হলো সেই সমাজে অবৈধ ক্ষমতা বিত্তের মানুষকে রাষ্ট্র দমাতে ব্যর্থ হয় বলে। ফলে মানুষ নিজের অজান্তেই কল্পনা করে, আহা, এরকম একজন নায়ক যদি আসতো, দেবদুত যদি আসতো আমাদের উপর থেকে এইসব অনাচার অত্যাচার নিমিষেই দুর করে দিত!

- Advertisement -

প্রকৃতপক্ষে আমাদেরতো কোন দস্যু বনহুর বা মাসুদ রানার দরকার নেই। আইনের শাসনই যথেষ্ট। আমাদের বনহুর বা মাসুদ রানা হবেন আমাদের পুলিশ বাহিনী তথা রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো, কোন ব্যক্তি নয়। এমনকি কোন রাজনৈতিক ব্যক্তি বিশেষও নয়। অথচ কি আশ্চার্য ঘটনা দেখুন, সমাজের সকল অনাচারেরে জন্য দায়ি যারা তারাই আবার স্ব স্ব রাজনৈতিক দলে একজন করে ব্যক্তি তথা নেতাকে হিরো বানানোর চেষ্টা করেন। এমন একটা আবহ তৈরী করার চেষ্টা করেন যে নিজ দলের নেতাই একমাত্র হিরো এবং প্রতিপক্ষ দলের নেতা হলো ভিলেন। নিজেরাই সমাজের দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, খুন, গুম, রাহাজানি, কালোবাজারি সকল রকম হীন কাজের জন্ম দেন, তারপর তাদেরই একজন নেতাকে বনহুর বা মাসুদ রানা সাজিয়ে জনগনের সামনে হাজির করে বলেন, দেখুন, আমাদের এই নেতাই হলেন সেই বনহুর, সেই মাসুদ রানা যিনি সকল প্রকার অন্যায় অনাচার থেকে আপনাকে মুক্তি দিবেন! সেলুকাস, কি বিচিত্র এই দেশ!

জনপ্রিয় সিরিজ মাসুদ রানার রচয়িতা, সেবা প্রকাশনীর কাজী আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে জানাই গভীর শোক ও সমবেদনা। আমি তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।

স্কারবোরো, অন্টারিও, কানাডা

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles