8.4 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৮, ২০২১

গণতান্ত্রিক দেশের চেহারা কেমন হয়?

- Advertisement -
কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান ওরিন ওটুল

একটি সত্যিকার গনতান্ত্রিক দেশের চেহারা কেমন হয়? আসুন যাচাই করি।

আজ দ্বিতীয় দিনের মত টরন্টোর অদুরে ক্যামব্রিজ শহরে কানাডার প্রধান মন্ত্রী জাষ্টিন ট্রুডোর নির্বাচনী সফর ও সমাবেশ ভ্যাকসিন বিরোধী একশ্রেনীর বর্ণবাদীদের প্রচন্ড বিক্ষোভের কারণে বিঘ্নিত হয় ও এক ঘন্টা দেরীতে অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভকারীরা ট্রুডোকে মৃত্যুর হুমকি দিয়ে, বর্ণবাদী গালাগালি সহ নানাভাবে হেয় করার চেষ্টা করে। এমনকি পুলিশের যারা শেতাঙ্গ নন, তাদেরকে উদ্দেশ্য করেও আজে বাজে শ্লোগান দেয়। সেখানে ট্রুডোর গুরুত্বপূর্ণ আবহাওয়া পরিবর্তন নীতি বিষয়ে বক্তব্য দেবার এজেন্ডা ছিল।

- Advertisement -

এতদ্বসত্তেও জাষ্টিন ট্রুডো কি বলেছেন সেখানে? কী ছিল তার প্রতিক্রিয়া?

সিবিসি নিউজের হেডলাইন হলো, “Trudeau says he won’t back down after protesters hurl death threats, racist and sexist slurs”.

- Advertisement -

অর্থাৎ তিনি ওদের ওইসব হুমকিতে তাঁর ভ্যাকসিন নীতি থেকে সরে যাবেন না।

- Advertisement -

তিনি বলেন, “”No, I’m not going to back down on a message that Canadians know is the right path forward, and that’s why Canadians need to choose to move Canada forward in this pivotal time,” Trudeau said”.

পুলিশদের গালাগালি সম্পর্কে তিনি কি বলেছেন দেখুন। “”First of all, I want to thank the police officers, local and national, who do an amazing job in both keeping people safe and allowing Canadians to express themselves,” Trudeau said. “That is what an election is all about. We may disagree with them, and of course, we will always condemn violence and hatred.”

কি চমৎকার কথা! তাকে যারা মৃত্যুর হুমকি দিচ্ছেন তিনি তাদের নিরাপত্তা দেবার জন্য এবং তাদের কথা বলার সুযোগ দেবার জন্য পুলিশকে ধন্যবাদ দিচ্ছেন। তারপর তিনি বলছেন, নির্বাচন মানেইতো তাই। আমরা তাদের মতের সাথে একমত নাও হতে পারি, তাতে কি! তবে অবশ্যই আমরা যে কোন প্রকার ভায়োলেন্স ও ঘৃণা চর্চার নিন্দা জানাই।

কল্পনা করতে পারেন?

এবার আসুন, সরকারী দল লিবারেল পার্টির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান নেতা এরিন অটুল কি বলেন! লিবারেল পার্টিকে নির্বাচনে হারাতে পারলে যিনি হবেন কানাডার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী, কানাডার প্রধান বিরোধী দল কনজারভেটিভ পার্টির নেতা এরিন অটুল বলেন,

“আমার দলের যারা লিবারেল পার্টির ট্রুডোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে তারা আমার নির্বাচনী প্রচারনায় যেন না আসে। তাদেরকে আমি সমর্থন করি না। তিনি বলেন, “Conservatives who took part in anti-Trudeau protests aren’t welcome in my campaign.”

সিবিসি নিউজের শিরোনাম দেখুন,

“Conservative Leader Erin O’Toole says Conservatives who were part of the aggressive protests that forced the cancellation of a Liberal campaign event on Friday are not welcome on his team.”

“If they were, they will no longer be involved with our campaign full stop,” Mr. O’Toole said at a campaign stop in Fredericton on Saturday.

অর্থাৎ তার দলের যারা ট্রুডোর বিরুদ্ধে আক্রমনাত্মক বিক্ষোভে জড়িত তারা যেন কোনভাবেই তার দলের প্রচারে না আসে, পরিস্কার কথা।

এরপর তিনি অনেকগুলো প্রচার সভায় বক্তব্য দেন কিন্তু সেখানে তিনি বিজয়ী হলে ট্রুডোর কর্মসুচীর চেয়ে তিনি কি কি বিষয়ে জনগনের অধিকতর কল্যাণ করতে পারবেন সেগুলো তুলে ধরেন।

অর্থাৎ নেগেটিভ রাজনীতিকে প্রকৃত গনতান্ত্রিক দেশের নেতারা কখনোই প্রশ্রয় দেন না। রাজনৈতিক বিরোধীরা এদের শত্রু নয়, প্রতিপক্ষ মাত্র। তাও সেটা শুধুমাত্র জনকল্যাণমূলক কর্মসুচীর প্রতিযোগিতায়। প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক নেতাদের নিরাপত্তা ও মান সম্মানকে সমুন্নত রেখেও যে সেটা করা যায় তা গনতান্ত্রিক দেশের অতি সাধারন সংস্কৃতি। এরা কখনোই প্রতিপক্ষের ঘর পুড়ায় নিজেরা আলু পুড়িয়ে খাবার চেষ্টা করে না। এরাও রাজনীতি করে ক্ষমতায় যাবার জন্য, কিন্তু অন্যের অপমান আর লাশের বিনিময়ে নয়। কারণ তা করলে নিজেদেরও একদিন একই পরিনতির সম্মুখীন হবার সম্ভাবনা থেকে যায়।

স্কারবোরো, কানাডা

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles