ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যে ‘ভয়ঙ্কর ইশারা’ আছে : রিজভী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
এক গভীর ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের আভাস পাচ্ছি আমরা। সরকারের মদদে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে কারা কর্তৃপক্ষের গড়িমসি, অবহেলা ও উপেক্ষার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। শুক্রবার সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘একদিকে মশার উপদ্রব, অন্যদিকে ঘন ঘন বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় তাকে অবর্ণনীয় কষ্টে দিন পার করতে হচ্ছে। পুরাতন ভবনের স্যাঁতস্যাঁতে কক্ষে তাকে বিভিন্ন সমস্যায় আক্রান্ত হতে হচ্ছে।’

বিএনপি নেত্রীকে নির্যাতন করতেই সরকার এমনটি করছে বলে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে আমরা বারবার উদ্বেগ প্রকাশ করলেও সরকার ও কারা কর্তৃপক্ষ তাতে ন্যূনতম কান দিচ্ছে না।’

গতকাল বৃহস্পতিবার দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির তিন নেতা কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে গেলে কর্তৃপক্ষ তাদের ফিরিয়ে দিয়েছে। তারা বিকাল ৩টা ৩৫ মিনিটে কারাগারে পৌঁছালে তাদের ফটকসংলগ্ন অনুসন্ধান কেন্দ্রে অপেক্ষা করতে বলা হয়। ১৫ মিনিট অপেক্ষায় রেখে কর্তৃপক্ষ বিএনপি প্রধানের সঙ্গে দেখা হবে না বলে জানানো হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যে ‘ভয়ঙ্কর ইশারা’ আছে বলে মন্তব্য করে রিজভী জানান, তিনি বলেছেন,‘হায়াত-মউত আল্লাহর হাতে, এখানে কারও হাত নেই।’ এর মানে কি? তার এই বক্তব্য কি খালেদা জিয়ার জীবনের নিরাপত্তার জন্য আরও বেশি উদ্বেগ ও শঙ্কার নয়?

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘ওবায়দুল কাদেরের ওই বক্তব্য বলে দিচ্ছে, সত্যি সত্যি তারা বিএনপি চেয়ারপারসনের জীবন নিয়ে একটা গভীর চক্রান্তে লিপ্ত। আমি স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই- অবিলম্বে দেশনেত্রীর ইচ্ছানুযায়ী রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের দিয়ে তাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক। অন্যথায় জনগণের রোষানল থেকে কেউই রেহাই পাবেন না। দেশনেত্রীর চিকিৎসা নিয়ে কারাকর্তৃপক্ষের গড়িমসি সহ্য করা হবে না।’

এসময় খালেদা জিয়াকে তার পছন্দ অনুযায়ী চিকিৎসাসেবার সুযোগ প্রদানের জন্য সরকারের প্রতি জোর আহ্বান জানান রিজভী আহমেদ।

 

২০ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:২৫:৩১