ক্যারিবীয় সমুদ্রে ‘আবর্জনা দ্বীপ’
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
আবর্জনা কোথায় কীভাবে ফেলতে হবে এ বিষয়ে মানুষের যে আচরণ, তারই ফল ভোগ করছে সমুদ্র৷ সম্প্রতি ক্যারিবীয় সমুদ্রের এমন এক দ্বীপের ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে, যে দ্বীপকে ‘আবর্জনা দ্বীপ’ বললে মোটেও ভুল হবে না৷ হন্ডুরাসের সমুদ্র উপকূলবর্তী রোয়াটান দ্বীপের ভিডিওটি দেখলে আপনি বিস্ময়ে হতবাক হতে বাধ্য৷ যে দ্বীপটি এক সময় ছিল প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের স্বর্গ, এখন তার আশপাশ প্লাস্টিকের আবর্জনায় পরিপূর্ণ৷ দিন দিন সেখানে আবর্জনা জমে ভাসমান এক দ্বীপের রূপ নিয়েছে, যেটি পুরোটাই প্লাস্টিক আর্বজনায় ভর্তি৷

ব্রিটিশ ফটোগ্রাফার ক্যারোলিন পাওয়ার সম্প্রতি এই ভিডিওটি ধারণ করে ইউটিউব ও সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে শেয়ার করেছেন৷ তিনি হাফিংটন পোস্টে এ বিষয়ে একটি ব্লগে লিখেছেন, ‘‘এই ভয়ংকর ভিডিওটি এটাই প্রমাণ করে যে, আমাদের পৃথিবী কতটা ঝুঁকির মুখে রয়েছে এবং এর জন্য আমরাই যে দায়ী সেটা বোঝাই যায়৷ অনেক মানুষই বুঝতে পারে না যে, তাদের প্রতিদিনকার আচরণ আমাদের গ্রহটিতে কতটা প্রভাব ফেলছে৷’’

ধারণা করা হচ্ছে দ্বীপটিতে এত আবর্জনা এসেছে গুয়াতেমালা থেকে৷ সম্প্রতি গুয়াতেমালায় প্রচুর বৃষ্টিপাত হওয়ায়, সেখানকার বিভিন্ন শহর ও গ্রাম থেকে আবর্জনাগুলো ভেসে এখানে এসে জড়ো হয়েছে৷

অক্টোবরের ১৬ তারিখে ক্যারোলিন তাঁর তোলা কিছু ছবি ফেসবুকে পোস্ট করার পর তা নিয়ে হইচই পড়ে যায়৷ ৩০শে অক্টোবর তাঁর তোলা ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করে ‘নাউ দিস’৷ তখন থেকেই ভিডিওটি ভাইরাল৷ এ পর্যন্ত ফেসবুকে ৮৪ লাখ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি৷ শেয়ার হয়েছে প্রায় ১ লক্ষ বার৷ কয়েক হাজার মানুষ মন্তব্য করেছেন৷ বেশিরভাগ মানুষই দাবি জানিয়েছেন, যাতে এ বিষয়ে জনসচেতনতা গড়ে তোলা হয়৷

ক্যারোলিন পাওয়ার জানিয়েছেন, এই আবর্জনা প্রায় ৫ মাইল ব্যাপী বিস্তৃত৷ এরপর দুই মাইলব্যাপী বিভিন্ন লাইন তৈরি হয়েছে, যেসব এলাকা থেকে আর্বজনাগুলো আসছে৷ যখন এই আবর্জনাগুলো সমুদ্রে এসে পড়ছে, তখন তা পরিষ্কার করার কথা কেউ ভাবছে না৷ আর এটা পরিষ্কার করাটাও ভীষণ ব্যয়বহুল এবং কষ্টসাধ্য৷ -ডয়েচেভেলে

 

১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ১১:৪৮:১১