21.4 C
Toronto
বুধবার, জুলাই ২৪, ২০২৪

সালমানকে হত্যা করতে ২৫ লাখ রুপির চুক্তি, পাকিস্তান থেকে আনা হয় আধুনিক অস্ত্র

সালমানকে হত্যা করতে ২৫ লাখ রুপির চুক্তি, পাকিস্তান থেকে আনা হয় আধুনিক অস্ত্র
বলিউড অভিনেতা সালমান খান ছবি সংগৃহীত

গত ১৪ এপ্রিল ভোরে মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় সালমানের বাড়ির বাইরে দুজন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি গুলি চালায়। এরপর হেলমেটের আড়ালে মুখ ঢেকে মোটরসাইকেলে করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় তারা। এর পরদিন গভীর রাতে গুজরাটের ভুজ থেকে দুজন শুটারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তারপর ধীরে ধীরে প্রকাশ্যে আসতে থাকে অভিনেতাকে হত্যার পরিকল্পনার কথা। সম্প্রতি এই মামলার চার্জশিট পেশ করেছে মুম্বাই পুলিশ। আর সেখান থেকেই প্রকাশ্যে এল হাড় হিম হওয়া আরও নানা তথ্য।

৩৫০ পৃষ্ঠার চার্জশিটের বিস্তারিত তুলে ধরেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া। সেখানে ঘটনার পরিকল্পনাকারী হিসেবে পাঁচজনের নাম এসেছে। এদের সবাই বিষ্ণই গ্যাংয়ের সদস্য।

- Advertisement -

এই চার্জশিটে আরও জানানো হয়েছে, সালমান খানকে হত্যা করতে ২৫ লাখ রুপির চুক্তি করেছিল অভিযুক্তরা। ২০২৩ সালের আগস্ট থেকে ২০২৪ সালের এপ্রিল পর্যন্ত এই ষড়যন্ত্রের ছক কষা হয়। পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে এই গ্যাং পাকিস্তান থেকে একে ৪৭, একে ৯২, এম ১৬ রাইফেল, তুরস্কের বিখ্যাত জিগানা পিস্তল আনিয়েছিল। এই জিগানা পিস্তল দিয়েই ২০২২ সালের ২৯ মে পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুজওয়ালাকে হত্যা করা হয়েছিল।

রীতিমতো নজরদারি চালানো হয়েছিল সালমানের ওপর। অভিনেতার চলাফেরার ওপর নজর রাখতে বেশ কজনকে নিয়োগ করা হয়েছিল। ভাইজানের মুম্বাইয়ের পানভেলের ফার্মহাউস থেকে শুরু করে গুরুগ্রামের ফিল্ম সিটি বা তিনি যেখানে যেখানে নিয়মিত শুটিংয়ে যেতেন, সেসব জায়গায় তাঁকে অনুসরণ করত বিষ্ণই গ্যাংয়ের সদস্যরা। অভিনেতার আশপাশে সব সময় নজরদারিতে থাকত তারা, গোল্ডি ব্রার বা আনমোল বিষ্ণইয়ের কাঁ থেকে হত্যার হুকুমের অপেক্ষা করছিল তারা।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles