7.8 C
Toronto
বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪

বাতাসের চাপ থেকে বিদ্যুৎ: বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশি স্টার্টআপ

বাতাসের চাপ থেকে বিদ্যুৎ: বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশি স্টার্টআপ

রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরের উত্তর-পূর্ব উপকূলের শহর সোচিতে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হলো ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যাল-২০২৪। এতে বিশ্বের প্রায় ১৮০টি দেশ থেকে অংশ নেন ২০ হাজার যুব প্রতিনিধি।

- Advertisement -

এ ফেস্টিভ্যালে রাশিয়ার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও ইয়ং এন্ট্রাপ্রেনিউরস ক্লাবের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় আন্তর্জাতিক ইয়ুথ ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল ফোরাম। এতে বিভিন্ন দেশের বাছাইকৃত ৬০টি স্টার্টআপ কোম্পানি তাদের ইনোভেটিভ প্রকল্পগুলো প্রদর্শন করে। এর মধ্যে ছিল বাংলাদেশও।

বাংলাদেশ থেকে বিডি হাইওয়ে টারবাইন নামের একটি স্টার্টআপ অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়। স্টার্টআপটির ফাউন্ডার ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স-বাংলাদেশের (আইডিইবি) রিসার্চ অ্যান্ড টেকনোলজিক্যাল ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক আব্দুল্লা আল আরাফ ও রাহাত উদ্দিন।

ফেস্টিভ্যালে তারা তাদের নিজেদের ভারটিক্যাল অ্যাক্সিস উইন্ড টারবাইন প্রদর্শন করেন। এ ছাড়া তারা সেখানে বাংলাদেশের স্টার্টআপ ইকো সিস্টেমের প্রতিনিধিত্ব করেন। প্রকল্প প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন রাশিয়ার শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধানমন্ত্রী ডেনিস মান্টুরভ।

আব্দুল্লা আল আরাফ এবং রাহাত উদ্দিন জানান, বিডি হাইওয়ে টারবাইনের কাজ হলো হাইওয়ে, নৌপথ, নদী ও সমুদ্রের তীরে থাকা বাতাসের চাপকে কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা। হাইওয়ে বা মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার গাড়ি চলে। এসব গাড়ি দ্রুতগতিতে গন্তব্যে ছুটে যায়। গতির কারণে হাইওয়ের দুই পাশে তীব্র বাতাসের চাপ সৃষ্টি হয়। এ বায়ুর চাপ কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম এ টারবাইন।

তারা জানান, উইন্ড টারবাইনগুলোতে দেওয়া হয়েছে বেশ কিছু আইওটি সেন্সর, যার সাহায্যে মহাসড়কের তাপমাত্রা, বাতাসের আর্দ্রতা ও কার্বন-ডাইঅক্সাইডের পরিমাণ জানা যাবে। এ প্রকল্পে সহায়তা করছে ইউনিসেফ বাংলাদেশের জেনারেশন আনলিমিটেড। প্রকল্পটি আরও বড় পরিসরে বাস্তবায়নের জন্য ফেস্টিভ্যালে উপস্থাপন করা হয়।

ফেস্টিভ্যালের প্রদর্শনীতে অংশ নেন বিভিন্ন দেশের স্টার্টআপ, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগের প্রতিষ্ঠাতা এবং কোম্পানি ও শিল্প ইউনিয়নের প্রধানরা। তারা বিভিন্ন সেশন, ওয়ার্কশপ, স্টার্টআপ শো-তে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান।

বৈশ্বিক এ আয়োজনে বাংলাদেশ থেকে অংশ নেন ৯৫ তরুণ-তরুণী। তারা বিশ্ব দরবারে তুলে ধরেন নিজের দেশকে। উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্তিন, রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভাসহ আরও অনেকে।

সূত্র : বাংলানিউজ

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles