6.6 C
Toronto
সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪

গারদ খানায় বিএনপি নেতাকে ছেলের চুমু খাওয়ার ছবি ভাইরাল

গারদ খানায় বিএনপি নেতাকে ছেলের চুমু খাওয়ার ছবি ভাইরাল
বিএনপি নেতা মুনিরকে গারদ খানায় দেখতে গিয়ে চুমু খাচ্ছেন ছেলে মাহিন

নাশকতার মামলায় ফরিদপুরের সালথা উপজেলা বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক এ জেড এম মুনিরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। আর এই খবর পেয়ে বাবা মুনিরকে একনজর দেখতে আদালতের গারদ খানার সামনে হাজির হয়েছিল তার ছোট্ট ছেলে মাহিন।

একপর্যায় গারদ খানার লোহার জানালার ভেতর দিয়ে বাবার মুখে চুমু দেয় মাহিন। এ সময় সেই দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করেন কেউ একজন। পরে ওই ছবি ফেসবুক পোস্ট করে ওই ব্যক্তি লিখেন, ‘কারারুদ্ধ বাবার প্রতি সন্তানে ভালবাসা।’ যা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে ফরিদপুর আদালতের গারদ খানায় এ ঘটনা ঘটে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সালথা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মো. মামুন চৌধুরী।

জানা গেছে, একটি নাশকতা মামলায় মুনিরসহ সালথা উপজেলার চার বিএনপি নেতাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে ফরিদপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আকবর আলী তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

কারাগারে পাঠানো অন্য তিন নেতাকর্মী হলেন- সালথা উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি মো. ফরিদুর রহমান, বিএনপি নেতা মো. তৌহিদ খান ও ছাত্রদল নেতা মো. নাঈম মিয়া। বিএনপির ওই চার নেতাকে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মাদ মামুন অর রশিদ মামুন।

তিনি বলেন, ‘হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে ছিলেন ওই চার নেতা। ৬ সপ্তাহের জামিন শেষে বৃহস্পতিবার সকালে ফরিদপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজির হন তারা। পরে আদালত তাদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।’

উল্লেখ্য, দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের কয়েকদিন আগে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের ঝুনাখালীর চালতলা নামক এলাকার একটি নাশকতা মামলার আসামি ছিলেন তারা।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles