7.1 C
Toronto
শুক্রবার, মার্চ ১, ২০২৪

রাজমিস্ত্রির প্রেমে পড়ে কোটিপতি স্বামীকে হত্যা!

রাজমিস্ত্রির প্রেমে পড়ে কোটিপতি স্বামীকে হত্যা!
স্বামীর সঙ্গে পিঙ্কি ছবি সংগৃহীত

ভারতের উত্তরপ্রদেশে রাজমিস্ত্রির প্রেমে পড়ে কোটিপতি স্বামীকে ভাড়াটে খুনীর মাধ্যমে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আনন্দবাজার অনলাইন।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটি কানপুরের। অভিযুক্ত গৃহবধূর নাম পিঙ্কি। ২০১২ সালে রাজেশ নামে এক স্কুল শিক্ষকের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল তার। শিক্ষকতার পাশাপাশি জমি-বাড়ির ব্যবসাও করতেন রাজেশ। প্রচুর পৈতৃক সম্পত্তিও ছিল তার। দেড় কোটি রুপি করে দুটি বীমা থাকার কথাও জেনেছে পুলিশ।

- Advertisement -

২০২১ সালে কানপুরের কয়লা নগরে একটি আবাসন তৈরির কাজ শুরু করেন রাজেশ। সে সময় নির্মাণকাজের জন্য রাজমিস্ত্রি শৈলেন্দ্রকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন। কাজের সূত্রে প্রায়ই রাজেশের ঘরে যেতেন শৈলেন্দ্র। আর সেই সুবাদেই পিঙ্কির সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

দুই সন্তানের মা পিঙ্কি বিএড করেছিলেন। রাজেশের আড়ালেই শৈলেন্দ্রের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু রাজেশ বিষয়টি জানার পর শৈলেন্দ্রকে কাজ থেকে সরিয়ে দেন। তারপর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ শুরু হয়।

এরপর সন্তান ও স্বামীর ঘর ছেড়ে শৈলেন্দ্রের সঙ্গে ঘর বাধার পরিকল্পনা করেন পিঙ্কি। কিন্তু ‘পথের কাঁটা’ হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন স্বামী রাজেশ। পিঙ্কি চেয়েছিলেন স্বামীর মৃত্যুর পর তার তিন কোটি রুপির বীমা দাবি করবেন। শুধু তাই-ই নয়, ৪৫ কোটি রুপি জমির মালিকানার অধিকারীও তিনি হবেন।

তাই স্বামীকে সরিয়ে দিতে ভাড়াটে খুনীকে চার লাখ রুপি দেন পিঙ্কি এবং শৈলেন্দ্র। পুলিশ জানিয়েছে, ভাড়াটে খুনী দিয়ে খুনের আগে রাজেশের খাবারে বিষ মিশিয়ে দিয়েছিলেন পিঙ্কি। কিন্তু যথাসময়ে হাসপাতালে ভর্তি করানোয় সে যাত্রায় বেঁচে যান রাজেশ। তারপর ভাড়াটে খুনী ঠিক করা হয়। যদিও ভাড়াটে খুনী টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

দুই বার বেঁচে যান রাজেশ। কিন্তু তৃতীয় বার শেষ রক্ষা হয়নি। গত ৪ নভেম্বর সকালে প্রাতভ্রমণে বেরিয়েছিলেন রাজেশ। সেই সময় তাকে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles