‘সব দুখশোক সার্থক হোক লভিয়া তোমারি আলো হে’

- Advertisement -


ষাটের দশকের কবিদের মসির পথ ধরে স্বাধীন বাংলাদেশের সাহিত্য সংস্কৃতিতে যে নবজাগরণ সূচিত হয়, যারা এই অগ্রযাত্রার পথিক তাদের অনেককেই আমরা হারিয়েছি। বাংলা সাহিত্য সংস্কৃতির অনেক পথে আলো হাতে এখনো যে কজনের বিচরণ বর্তমান তাদের মধ্যে উচ্চশিরে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতিকে যিনি এগিয়ে নিয়ে চলেছেন প্রতিদিন। মূল্যবোধের অবক্ষয়ের মাঝে আমরা যখন দুঃস্বপ্ন দেখছি, তিনি এখনো আমাদের স্বপ্ন দেখিয়ে চলেছেন মানবিক মূল্যবোধ আর এক অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলার তিনি কবি আসাদ চৌধুরী। দীর্ঘ সময়ের টরন্টো প্রবাসী মিষ্টভাষী প্রিয় কবির জন্মদিন ছিলো গত ৫ নভেম্বর।
তিনি আমাদের শহরের বাংলাভাষী মানুষের আবেগের আশ্রয়, তাকে ঘিরে আমরা আলোয় থাকি, তাকে ঘিরে আমরা ভালোয় থাকি, তিনি কল্যাণ হয়ে ছায়ার মতো আমাদের মাথার উপর। তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে কোভিড বিধি মেনে খুব ঘরোয়া পরিসরে কানাডা বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে কবির জন্মদিনে কবিকে নিয়ে কেক কাটেন কানাডা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আমিন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফারহানা শান্তা। কবির সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।
উপস্থিত ছিলেন কবিপত্নি সাহানা চৌধুরী, কন্যা নুসরাত জাহান চৌধুরী শাঁওলি, জামাতা চিত্রপরিচালক নাদিম ইকবাল, মনির বাবু এবং লেখক, আবৃত্তিকার হিমাদ্রী রয়।

- Advertisement -

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles