15.9 C
Toronto
শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

সুন্দরী মডেলের কোকেন বাণিজ্য

সুন্দরী মডেলের কোকেন বাণিজ্য
প্রতীকী ছবি

কোকেন বাণিজ্যে জড়িত সোবহানা রহমান (৩৫) নামে এক সুন্দরী মডেলকে গ্রেফতার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি)। ডিএনসি বলছে, তিনি গত বছর সেপ্টেম্বরে গ্রেফতার হওয়া মাদক কারবারি সেলিম সাত্তারের চক্রের একজন। সোবহানা বিদেশ থেকে কোকেন আমদানি করে অভিজাত, উচ্চবিত্ত আর বিদেশিদের কাছে বিক্রি করতেন। রাজধানীর শ্যামলীতে তিনি ফ্ল্যাটে পার্টির আয়োজন করে কোকেনের রমরমা বাণিজ্য চালাতেন।

শ্যামলীতে ১৭ জুলাই অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে ডিএনসির ঢাকা মেট্রো উত্তর। এ ঘটনায় ওই দিনই শেরেবাংলা নগর থানায় একটি মামলা করেন ডিএনসির ধানমন্ডি সার্কেলের উপ-পরিদর্শক আ. ছাত্তার। তবে কোকেন বাণিজ্যের আরেক হোতা সোবহানার স্বামী আবু বক্কর সিদ্দিক কেনি এখনো পলাতক রয়েছেন।

- Advertisement -

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদে শ্যামলী হাউজিংয়ের ২ নম্বর রোডের ৬তলা একটি বাড়ি ঘেরাও করে পুলিশের সমন্বয়ে গঠন করা ডিএনসির টিম। পরে তারা চতুর্থ তলায় একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালান। ফ্ল্যাট তল্লাশির সময় সোবহানার কোমরে গুঁজে রাখা জিপারযুক্ত একটি স্বচ্ছ পলিপ্যাকেট পাওয়া যায়। ওই প্যাকেটে ১০ গ্রাম কোকেন পাওয়া যায়। একই সঙ্গে তার কাছ থেকে দুটি দামি মোবাইল ফোনও জব্দ করা হয়।

ডিএনসির ঢাকা মেট্রো উত্তরের সহকারী পরিচালক মেহেদী হাসান জানান, সোবহানা উচ্চবিত্ত আর বিদেশিদের কাছে কোকেন সরবরাহ করতেন। তার কাছ থেকে জব্দ দামি মোবাইল ফোনে গ্রাহক ও কোকেন আনার নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। গত বছর সেপ্টেম্বরে বনানীর একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে কোকেন, এলএসডি, কুশ, এমডিএমএ, সিসা, বিদেশি মদ, আইস, গাঁজাসহ সেলিম সাত্তার নামে একজনকে গ্রেফতার করে ডিএনসি। তিনি সামাহ্ রেজার ব্লেডস ইন্ডাস্ট্রিজ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক। ডিএনসি সূত্র জানায়, সেলিম সাত্তার সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশের নাগরিক। অনেক দেশে যাতায়াতের সুবাদে তিনি বিভিন্ন মাদক সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি এসব মাদক সেবন করছিলেন। এ ছাড়া বন্ধু মহলসহ বিভিন্ন পার্টিতে এসব মাদক সরবরাহ করতেন।

তিনি নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডাম থেকে এলএসডি ও এক্সটাসি, স্পেনের বার্সেলোনা থেকে কোকেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে কুশ এবং স্থানীয়ভাবে আইস ও ক্যানাবিস চকলেট ও বিদেশি মদ সংগ্রহ করতেন। জানা গেছে, ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৯ জুন জব্দ করা ২ কেজি কোকেনসহ সালোমে লাল রামধারি নামে এক নারীকে আটক করে শুল্ক গোয়েন্দারা। তিনি আন্তর্জাতিক মাদক চোরাচালান চক্রের সদস্য। তিনি আফ্রিকার দেশ বেনিন থেকে এক বান্ধবীর মাধ্যমে কোকেনের এই চালান সংগ্রহ করেন। পরে কাতার হয়ে চালানটি ঢাকায় আনেন। সালোমের পরিকল্পনা ছিল চালানটি ঢাকা থেকে নেপাল হয়ে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে নিয়ে যাওয়া। বাংলাদেশেও কোকেনের বাজার সৃষ্টি করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে তিনি কাজ করছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা হয়।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles