17.2 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪

খাবার ছাড়াই সমুদ্রে ৬০ দিন বেঁচে ছিলেন যে নাবিক

খাবার ছাড়াই সমুদ্রে ৬০ দিন বেঁচে ছিলেন যে নাবিক

প্রশান্ত মহাসাগরে ৬০ দিন ভাসমান অবস্থায় কাটালেন অস্ট্রেলীয় এক নাবিক। সঙ্গে ছিল শুধুমাত্র তার পোষা কুকুর বেলা। মেক্সিকো থেকে ফ্রান্সের পলিনেশিয়ায় যাওয়ার জন্য যাত্রা করেছিলেন নৌকা নিয়ে। কিন্তু ঝড়ে বিকল হয়ে যাওয়ায় নিয়ন্ত্রণহীন অবস্থায় ভাসতে থাকে নৌকাটি। সেখানেই শুধু কাঁচা মাছ আর বৃষ্টির পানি খেয়ে বেঁছে ছিলেন ৫১ বছর বয়সী নাবিক টিম শ্যাডক। খেয়াল রেখেছেন কুকুর বেলারও।

- Advertisement -

ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ায়। চলতি সপ্তাহেই তাদেরকে উদ্ধার করা হয়। ওপর থেকে একটি হেলিকপ্টার থেকে প্রথম তাদের নৌকা ভাসতে দেখে কোস্ট গার্ড কর্মকর্তারা। এরপর নিকটবর্তী এক ট্রলারকে খবর দেওয়া হলে তাদের উদ্ধার করা হয়। চিকিৎসক জানিয়েছেন শ্যাডক সুস্থ আছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মেক্সিকোর লা পাজ থেকে রওনা দেওয়ার পর সমুদ্রে ৬ হাজার কিলোমিটার ভেসে বেরিয়েছেন শ্যাডক। ফ্রান্সে যাওয়ার জন্য রওনা দিলেও ঝড়ের কবলে পড়েন তারা। এতে করে তার নৌকার ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে এবং নিয়ন্ত্রণহীন অবস্থায় ভাসতে থাকেন।

দুই মাস পর যখন তাদের উদ্দার করা হয়, তখন শ্যাডককে চেনা যাচ্ছিল না। মুখভর্তি দাঁড়ি ছিল এবং পুষ্টির অভাবে অনেকটাই শুকিয়ে গেছিলেন। এক ভিডিও বার্তায় শ্যাডক বলেন, `আমি সমুদ্রে অনেক কঠিন সময় পার করেছি। এই মুহূর্তে আমার খাবার আর বিশ্রাম প্রয়োজন। সমুদ্রে অনেকটা সময় আমাকে একা কাটাতে হয়েছে।‘

শ্যাডক জানান, তার নৌকায় থাকা মাছ ধরার জিনিসপত্রই তাকে বেঁচে থাকতে সাহায্য করেছে। নৌকার ছাদের নিচে আশ্রয় নিয়ে সানবার্ন থেকেও নিজেকে রক্ষা করতে পেরেছিলেন তিনি।

উদ্ধারের পর তাকে চিকিৎসার জন্য মেক্সিকো নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles