19.7 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০২৪

টাইটানিক দেখতে গিয়ে পরিণতি হবে ভয়াবহ, ১০ বছর আগের পোস্ট ভাইরাল!

টাইটানিক দেখতে গিয়ে পরিণতি হবে ভয়াবহ, ১০ বছর আগের পোস্ট ভাইরাল!
<br >প্রতীকী ছবি

আটলান্টিক মহাসাগরে টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষ দেখতে গিয়ে ‌‌‘টাইটান সাবমার্সিবল’ ডুবোযানের পাঁচজন আরোহীই মারা গেছেন। এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট ভাইরাল হয়ে গেছে। যে পোস্টে ১০ বছর আগেই দাবি করা হয়েছিল যে টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষ দেখতে গিয়ে ভয়াবহ পরিণতি হবে ধনকুবেরের।

ভারতের সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস ও সিএনবিসি টিভি১৮-এর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষ দেখতে গিয়ে ডুবোজাহাজ ‘টাইটান’র ভয়াবহ পরিণতি হয়েছে। এর মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট ভাইরাল হয়ে গেছে, যেটি ২০১৩ সালের ১ নভেম্বর করা হয়েছিল বলে দাবি করা হয়েছে।

- Advertisement -

ওই পোস্টে দাবি করা হয়েছিল, এক নারী নাকি স্বপ্ন দেখেছিলেন যে এক বিলিয়নিয়ার টাইটানিকের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করবেন। তাতে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হবে। আর ঠিক সেটাই হয়েছে।

এমন ঘটনায় সবাই হতবাক। তারা বুঝে উঠতে পারছেন না যে কীভাবে ১০ বছর আগের একটি পোস্টের সঙ্গে টাইটানের ঘটনা মিলে গেল। নাকি পুরো বিষয়টি প্রযুক্তির কারসাজি, তা ভেবে কুলকিনারা পাচ্ছেন না নেটিজেনরা।

গতকাল শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল পোস্টে দেখা গেছে, ২০১৩ সালের ১ নভেম্বর দেবোরা গ্রাটান নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন যে ‘একটা উদ্ভট স্বপ্ন দেখেছি। এক দুষ্ট কোটিপতি ব্যক্তি টাইটানিকের কাছে পৌঁছানোর জন্য একটি মিশন শুরু করেছেন এবং কোনোভাবে কিছু অংশ থেকে জল বের করতে পেরেছেন। কিন্তু তারপরই মিশনটা ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রূপ নেয়। সম্ভবত এটা থেকে একটি ভালো সিনেমা হয়ে যাবে।’

যে নামের অ্যাকাউন্ট থেকে ওই পোস্ট করা হয়েছিল, ওই অ্যাকাউন্টের অস্তিত্বও খুঁজে পাওয়া গেছে। ওই অ্যাকাউন্ট থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টা ২৫ মিনিটে আরও একটি পোস্ট ভেসে উঠেছে। ওই পোস্টে লেখা আছে, ‘দেখে মনে হচ্ছে যে ২০১৩ সালে করা আমার একটি পোস্ট ভাইরাল হয়ে গেছে। আমি শুধু একটা বলতে চাই, ওই পোস্টের বিষয়বস্তু নিয়ে আমি সত্যি-সত্যিই কিছুটা দুঃখিত।’

ফেসবুক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘আমি একটি বাজে স্বপ্ন দেখেছিলাম এবং সেটা পোস্ট করে দিয়েছিলাম। যে বেচারা লোকগুলো ওই পরিস্থিতিতে ছিলেন, তাদের কতটা খারাপ অবস্থার মুখোমুখি হয়েছিল, আমি সেটা ভাবতেও পারছি না। ওরা বড়লোক ছিলেন কি না, সেটা কোনো বিষয় নয়। ওরাও দিনের শেষে মানুষ। কারও ও রকম মৃত্যু কাম্য নয়।’

উল্লেখ্য, প্রায় ১১০ বছর আগে ডুবে যাওয়া টাইটানিক দেখতে আটলান্টিক মহাসাগরে পাড়ি দেয় ‘ওশানগেট’ সংস্থার ডুবোজাহাজ টাইটান। তাতে ছিলেন পাঁচ ধনকুবের। সেই ডুবোজাহাজ টাইটানের পরিণতিও ভয়ঙ্কর হয়। চিহ্নিত করা গেছে ধ্বংসাবশেষ। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, হয়ত মুহূর্তের মধ্যে টাইটন দুমড়ে গিয়েছিল। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ অভিযাত্রীর।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles