মাহমুদউল্লাহদের পারফরম্যান্সে হতাশ প্রবাসী বাঙালিরা

- Advertisement -
ছবি সংগ্রহ

বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ দলের টানা দুই পরাজয়ে হতাশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসরত প্রবাসী বাঙালিরা। নিজেদের কাজ-কর্ম রেখে এতো দূরে খেলা দেখতে এসে এমন পারফরম্যান্সে ক্ষুব্ধ অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন অনেকে।

লিটন দাসকে একাদশে রাখায় অনেকের মধ্যেই ছিলো ক্ষোভ। দিনের পর দিন এমন অফ ফর্মের একজন ক্রিকেটারকে সুযোগ দেয়া নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তারা।

- Advertisement -

খেলার তখনও বাকি ছিলো অনেকটা। কিন্তু শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামের ভেতর থেকে দল বেঁধে বের হয়ে আসছিলেন দর্শকরা। প্রথম দর্শনে মনে হচ্ছিল, ইংল্যান্ড জিততে থাকায় হয়তো তাদের সমর্থকরা ফিরে যাচ্ছেন তুষ্ট হৃদয়ে। কিন্তু সামনে যেতেই দেখা গেল মাথায় বুকে লাল সবুজের পতাকা বেঁধে হতাশ মনে মাঠ এলাকা ছাড়ছেন টাইগার ভক্তরা।

সবার চোখে মুখেই ছিল হতাশা। শহর থেকে এত দূরে এসে এমন বাজে পারফরম্যান্স দেখায় ছিল ক্ষোভও। এ সম্পর্কে এক প্রবাসী বাঙালি বলেন, বাংলাদেশের জেতার মতো কোনো ইচ্ছাই ছিল না। এভাবেই তারা খেলেছে। বাংলাদেশের যত সমর্থক আছে সবাই হতাশ বিষয়টি নিয়ে।

- Advertisement -

দলের অধিনায়কত্ব থেকে শুরু করে একাদশ নির্বাচন সব কিছু নিয়েই আপত্তি জানিয়েছেন সমর্থকরা। লিটনকে দিনের পর দিন দলে সুযোগ দেয়া নিয়েও রয়েছে তাদের বিস্তর প্রশ্ন। এক সমর্থক জানান, অধিনায়কত্বে ভুল আছে। নাসুম ভালো করেছে অথচ তাকে সবকটি ওভার করতে দেয়নি কেন। অন্য একজন বোলার নিয়ে আসছে পরে সে অনেক রান দিয়েছে।

- Advertisement -

সবাই যে শুধু ক্ষোভ প্রকাশেই সীমাবদ্ধ ছিলেন তা কিন্তু নয়। কেউ কেউ দিয়েছেন সমাধানও। চেয়েছেন যে কোনো মূল্যে দলে নিয়ে আসা হোক তামিম ইকবালকে। এক প্রবাসী বাঙালির ভাষায়, তামিম থাকলে এমন অবস্থা হতো না বাংলাদেশের ওপেনিং নিয়ে। তাকে যদি কোনো মূল্যে আনা যায় তাহলে অনেক ভালো হয়।

এতো হতাশার পরও কিন্তু প্রবাসী বাঙালিরা ভেঙে পড়েননি। আশা করেছেন উইন্ডিজের বিপক্ষে তাদের জয় উপহার দিতে পারবেন সাকিব-মুশফিকরা ।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles