5.2 C
Toronto
মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

হাসপাতালে নিগৃহীত এক আদিবাসী

হাসপাতালে নিগৃহীত এক আদিবাসী
ফাইল ছবি

কানাডায় ৩০ সেপ্টেম্বর যখন ন্যাশনাল ট্রুথ অ্যান্ড রিকনসিয়েলেশন দিবস উদযাপিত হচ্ছিল, ঠিক সেই সময় বৈষম্য ও রেজিনা জেনারেল হসপিটালে নিগৃহীত হওয়ার অভিযোগ করেছেন ৭৭ বছর বয়সী এক আদিবাসী। এ ব্যাপারে সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে রেজিনার ফার্স্ট নেশনস ইউনিভার্সিটিতে ফেডারেশন অব সবরেন ইন্ডিজেনাস নেশনসের (এফএসআইএন) সঙ্গে একসঙ্গে কথা বলছিলেন থমাস ফাভেল। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ঘুমের মধ্যে থাকার সময় তাকে নিগৃহীত হতে হয়।

ফাভেল বলেন, আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। এরপর একজন আমাকে ধরে এবং আমি জেগে যাই। ওই ব্যক্তি আমাকে দাঁড়াতে বাধ্য করে এবং আমি ভালোভাবে দৌড়াতে বা হাটতে পারি না। এরপর তিনি আমাকে দরজার দিকে ঠেলে নিয়ে যান।

- Advertisement -

ফাভেল যখন নিগৃহীত হওয়ার অভিযোগ করেন তখন তিনি ব্রংকাইটিস ও নিউমোনিয়ার চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। তিনি বলেন, তাকে জোরপূর্বক শয্যা থেকে উঠিয়ে দেওয়া হয় এবং ওই অবস্থায় তার পক্ষে কাশি দেওয়া ও থুথু ফেলা সম্ভব ছিল না। যদিও অসুস্থতার কারণেই সেটা খুব জরুরি ছিল। আমি সটান চিৎ হয়ে শুয়ে ছিলাম। আমার মনে হচ্ছিল, আমি বোধ হয় মারা যাচ্ছি।

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ফাভেলের পরিবারের সদস্যরা। ফাভেলের মেয়ে অ্যান ও ইউনিন সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তারা যখন তাকে জোর করে নামিয়ে দেয় তখন তিনি তাদের কাছে জানতে চান কেন তারা এটা করছেন। আমি কখনো আবাসিক স্কুল থেকে পালিয়ে যায় নি। আপনারা আমার সঙ্গে আবাসিক স্কুলের মতোই আচরণ করছেন।

ইউনিন বলেন, চিকিৎসকরা যখন তার বাবাকে দেখতে যেতেন তখন তারা তাকে পরীক্ষা করতেন না। তার গায়ের রংয়ের কারণে তারা তার থেকে দুই ফুট দূরে দাঁড়িয়ে থাকতেন। ভাইরাল জ¦র বলে তারা তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দিতেও চেয়েছিলেন।

একজন মানবাধিকার কর্মী বলেন, এটা মানবাধিকার, বর্ণ বৈষম্য ও চিকিৎসার অপব্যবহারের ঘটনা। যেসব নার্স এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের নাম আসেনি। তবে তাদের নামগুলো আপনারা জানতে পারবেন। আমরা তাদের খুুঁজে বের করতে যাচ্ছি। আমরা এর গভীরে যেতে চাই।
ইউনিন বলেন, বাবার শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখে আমি পুলিশকে ফোন করেছিলাম এবং অভিযোগ দাখিল করেছিলাম। আমরা এ ঘটনার বিচার চাইছি।

This article was written by Sohely Ahmed Sweety as part of the LJI.

 

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles