12.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

৫-১১ বছর বয়সীদের জন্য বুস্টার ডোজ অনুমোদন

- Advertisement -
ডা. তেরেসা ট্যাম বলেন, স্বাস্থ্য সমস্যায় ভোগা শিশুদের দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণের ছয় মাস আগে বুস্টার ডোজ না নেওয়ার সুপারিশ করেছে ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন ইমিউনাইজেশন (এনএসিআই)

৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের ওপর প্রয়োগের জন্য ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ অনুমোদন করেছে হেলথ কানাডা। কানাডার প্রধান জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. তেরেসা ট্যাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডা. তেরেসা ট্যাম বলেন, স্বাস্থ্য সমস্যায় ভোগা শিশুদের দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণের ছয় মাস আগে বুস্টার ডোজ না নেওয়ার সুপারিশ করেছে ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন ইমিউনাইজেশন (এনএসিআই)। এই বয়সশ্রেণির সব শিশুই বুস্টার ডোজ নিতে পারবে। এই বয়সী শিশুদের সুরক্ষা ব্যবস্থা তৈরিতে বুস্টার ডোজ কাজে আসবে। বিশেষ করে তারা, যারা গুরুতর অসুস্থ্যতার উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।

শিশুরা স্কুলে ফিরতে শুরু করায় স্কুলে কোভিড-১৯ সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ কাজ করছে। অন্য সব বয়সশ্রেণির তুলনায় এই বয়সশ্রেণির শিশুদের মধ্যে ভ্যাকসিন গ্রহণের হার সবচেয়ে কম। ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী মাত্র ৪২ শতাংশ দুই ডোজ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিয়েছে। সব বয়সশ্রেণির মানুষের মধ্যে ভ্যাকসিন নেওয়ার হার যেখানে ৮৩ শতাংশের বেশি।
তরুণদের মধ্যে বুস্টার ডোজ গ্রহণের হারও বেশ কম। ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন এখন পর্যন্ত বুস্টার ডোজ নিয়েছে। সর্বশেষ ডোজ নেওয়ার আট মাস পর বুস্্টার ডোজ নেওয়ার সুপারিশ করেছে এনএসিআই।

ট্যাম বলেন, দেশব্যাপী কোভিড-১৯ মহামারির সাম্প্রতিক ঢেউ হয় চূড়ায় রয়েছে অথবা চূড়া থেকে নেমে গেছে। কারণ, অধিকাংশ অঞ্চলেই আক্রান্তের সংখ্যা ও হাসপাতালে ভর্তির হার হ্রাস পেয়েছে। তারপরও হেমন্তে সংক্রমণ বাড়তে পারে। আমরা চাই মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরুক। তারা স্কুলে যাক, কলেজে যাক, কর্মস্থলে ফিরুক। এই অবস্থায় সুরক্ষার একটি স্তর তৈরি করা আমাদের খুবই প্রয়োজন। লোকজন যাতে বুস্টার ডোজ নেন সেজন্য হেমন্তের আাগে ভ্যাকসিন ক্যাম্পেইন জোরদার করা উচিত।
অর্ধেক কানাডিয়ান এখন পর্যন্ত বুস্টার ডোজ নিয়েছেন। অন্যদিকে চুতর্থ ডোজ নিয়েছেন মাত্র ১১ শতাংশ।

This article was written by Sohely Ahmed Sweety as part of the LJI.

Related Articles

Latest Articles