14.8 C
Toronto
রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ এটা কথার কথা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

- Advertisement -
‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ এটা কথার কথা ছিল বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

রোববার (১৪ আগস্ট) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেটের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ দাবি করেন।

মন্ত্রী বলেন, “আমি তো বেহেশত ‘কথার কথা’ বলেছি।

গত পরশু আমাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল: আমাদের ইকোনমিক অবস্থা কেমন? আমি বলেছিলাম, আমরা তো ভালো করছি। এই কোভিডের সময় গত বছর জিডিপির গ্রোথ ছিল ৬ দশমিক ৯৪। তবে আমরা ভালো করার চেষ্টা করছি।”

মোমেন বলেন, ‘আমরা জ্বালানি সাশ্রয়ের উদ্যোগ নিয়েছি। সে কারণে আমাদের দাম বেড়েছে ৭ শতাংশ। আমেরিকায় বাড়ছে ৯ দশমিক ১ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে বেড়েছে, তুরস্কে বেড়েছে, পাকিস্তানে বেড়েছে ৩৭ শতাংশ, মিয়ানমারে বেড়েছে ১৫০ শতাংশ। সেদিক থেকে আমরা তো অনেক ভালো আছি।’

তিনি বলেন, আফগানিস্তানে মসজিদে গেলে লোক মারা যায়, কোনো কোনো দেশে শপিং মল, স্কুলে লোকজন মেরে ফেলা হয়। বাংলাদেশ তেমন বাজে অবস্থায় নেই। তাই আমরা অনেক ভালো আছি। অনেকটা বলতে পারেন বেহেশতে আছি।’

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় হেসে ফেলেন মন্ত্রী। বলেন, “আপনারা আমাকে ধরে ফেললেন। আই অ্যাম সরি। আমি তো বেহেশত ‘কথার কথা’ বলেছি। কিন্তু আপনারা আমাকে খেয়ে ফেললেন।”

মন্ত্রীর উক্তি নিয়ে আলোচনা ও এ ব্যাপারে সংবাদ প্রকাশ ‘মিডিয়ার স্বাধীনতা খর্ব করা’ বলে উল্লেখ করেন তিনি। ড. আব্দুল মোমেন বলেন, ‘এটি হলো বাংলাদেশে মিডিয়ার স্বাধীনতা খর্ব করা। আমি কি খর্ব করেছি? আমি কিছু করলে আপনারা ক্রিটিসাইজ করতে পারেন। আই ডোন্ট মাইন্ড। ইট ডাজ নট ম্যাটার। তবে, ভবিষ্যতে আমি সাবধানে থাকব। আমি শিক্ষক মানুষ। খোলামেলা মানুষ। যেটা মনে করি, সেটাই বলে ফেলি। আমার দলও আমাকে বলেছে, এই পজিশনে ভালো কথা বলা দরকার।’

গত শুক্রবার (১২ আগস্ট) সিলেটে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কিত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ বলে উক্তি করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ সংবাদ প্রকাশের পর সারা দেশে তুমুল সমালোচনার ঝড় ওঠে।

Related Articles

Latest Articles