22.7 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

কানাডার বিমানবন্দরে ভ্যাকসিনেটেড যাত্রীদের কোভিড পরীক্ষা নয়

- Advertisement -
পরিবহন মন্ত্রী ওমর আলঘাবরা

কানাডার বিমানবন্দরগুলোতে ভ্যাকসিনেটেড যাত্রীদের দৈবচয়ন ভিত্তিতে কোভিড-১৯ পরীক্ষ স্থগিত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন পরিবহন মন্ত্রী ওমর আলঘাবরা। শনিবার থেকে শুরু হয়ে এ মাসের শেষ পর্যন্ত এটি কার্যকর থাকবে। এরপর আগত যাত্রীদের বাধ্যতামূলকভাবে কমিউনিটিতে র‌্যাপিড টেস্ট করা হবে।

বর্তমানে ভ্যাকসিন গ্রহীতা যাত্রীদেরকেও বিমানবন্দরে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করতে হয়। তবে সরকার আগামী মাস থেকে এই পরীক্ষা অফ-সাইটে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে। এর আগে সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছিল, জুন পর্যন্ত বিদ্যমান জনস্বাস্থ্য বিধিনিষেধ বলবৎ থাকবে। কিন্তু কানাডার বিমানবন্দরগুলোর বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির উন্নয়নে শিল্প ও বিরোধীদের কাছ থেকে প্রচ- চাপ আসতে থাকে।

ওমর আলঘাবরা শুক্রবার বলেন, কানাডার কিছু বিমানবন্দরে যাত্রীদের যে উল্লেখযোগ্য সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে কানাডা সরকার তা স্বীকার করছে।
শিল্প গ্রুপের সমন্বয়ে গঠিত কানাডিয়ান ট্রাভেল অ্যান্ড টুরিজম রাউন্ডটেবিল কানাডিয়ান বিমানবন্দরগুলোতে এই বিশৃঙ্খলার জন্য কাস্টমসের মধ্য দিয়ে যাওয়া যাত্রীদের ওপর আরোপিত কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নজরদারিকে দায়ি করেন। তাদের মতে, মহামারির চূড়ান্ত সময়ে যাত্রী সংখ্যা কম থাকায় জনস্বাস্থ্য বিধিনিষেধ প্রয়োগ করা গেলেও বর্তমানে ফ্লাইটের ব্যাপক চাহিদার সময় তা সম্ভব নয়। কানাডার বিমানবন্দরসহ ট্রাভেল গ্রুপগুলো দৈবচয়নভিত্তিতে বিমানবন্দরে যাত্রীদের কোভিড-১৯ পরীক্ষার বিধান ১৫ জুন থেকে প্রত্যাহারের আহ্বান জানায়। কারণ, ওই সময় থেকে ভ্রমণ মৌসুম অন্যরকম গতি পাবে। গ্রুপটি এখনও পরীক্ষার শর্ত বাতিলের পাশাপাশি যাত্রী ও কর্মীদের ক্ষেতেক্র ভ্যাকসিনের বাধ্যবাধকতাসহ অন্যান্য বাধ্যবাধকতা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে যাচ্ছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে রাউন্ডটেবিলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কানাডার পুরাতন নিয়ম-কানুন দেশেল বিমানবন্দরে যাত্রীদের অগ্রহণযোগ্য বিলম্বের মধ্যে ফেলে দিচ্ছে। এর ফলে আন্তর্জাতিক যাত্রীরা মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন এবং বিশ^ মঞ্চে কানাডার সুনাম নষ্ট হচ্ছে।

কানাডার প্রধান জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. তেরেসা ট্যাম এর আগে বলেছিলেন, দৈবচয়নভিত্তিতে পরীক্ষা নতুন ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে আগাম সতর্ক ব্যবস্থা হিসেবে কাজ করছে। বিভিন্ন দেশে থেকে আসা যাত্রীদের নমুনা দৈবচয়নভিত্তিতে আমরা সংগ্রহ করবো এবং এর ফলে ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন শনাক্ত করতে সক্ষম হবো।

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পদক্ষেপের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেওয়ার দায়িত্ব রাজনীতিকদের হলেও পরিবহন মন্ত্রী আলঘাবরা সম্প্রতি বলেন, রাজনীতিবিদরা এ ব্যাপারে বিজ্ঞানকে অনুসরণ করছেন এবং জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ গ্রহণ করছেন।

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles