25.3 C
Toronto
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২

চার দিন ধরে ঘরে বাবার মরদেহ, টের পাননি ছেলে!

- Advertisement -
চার দিন ধরে ঘরে বাবার মরদেহ, টের পাননি ছেলে!
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর মালিবাগের বাগানবাড়ি এলাকায় সাবেক এক খাদ্য কর্মকর্তার গলিত মরদেহ পাওয়া গেছে। মৃত ব্যক্তির নাম আশিক এলাহী (৭৯)। তার গ্রামের বাড়ি ফেনীতে। বৃহস্পতিবার (০৯ জুন) রাতে মরদেহটি উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায় পুলিশ।

হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রশিদ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, অসুস্থতাজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়। তবে অন্যান্য বিষয়ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিন-চারদিন আগেই তার মৃত্যু হয় বলে ধারণা তার।

এ ঘটনায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর (ইউডি) মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পুলিশ সংবাদমাধ্যমকে জানায়, বাগানবাড়ি এলাকার ৫০৩/৬ নম্বর বাসার দশম তলার একটি ফ্ল্যাটে পরিবারের সঙ্গে থাকতেন আশিক এলাহী। তার স্ত্রী চোখের অস্ত্রোপচার করানোর জন্য কয়েকদিন আগে আরেক স্বজনের বাসায় যান। এ বাসায় ছিল তাদের মানসিক বিকারগ্রস্ত এক ছেলে। তিনি সব সময় নিজের ঘরে দরজা বন্ধ করে থাকেন।

একই ভবনের সপ্তম তলায় মৃতের মেয়ে নিসরাত সুলতানা থাকেন। দুই-তিনদিন ধরে তিনি বাবাকে ফোনে কল করে পাচ্ছিলেন না। তখন ভেবেছিলেন, হয়তো তার বাবা অজু করছেন বা নামাজ পড়ছেন বা ঘুমিয়ে আছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলেও তিনি গিয়ে দরজা বন্ধ পান। অনেকবার ডাকাডাকি করেও সাড়া পাননি। পরে অন্য দুই মেয়ে বাবার মোবাইল ফোনে কল করে সাড়া না পেয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। একপর্যায়ে আধাঘণ্টা পর তাদের ভাই এসে দরজা খুলে দেন। তখন ভেতরে গিয়ে তারা বিছানার ওপর আশিক এলাহীর অর্ধগলিত মরদেহ পান।

দীর্ঘদিন ধরে নানা অসুখে ভুগছিলেন আশিক এলাহী। তার হার্টের সমস্যা ছিল। একাধিকবার স্ট্রোক হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সবার অগোচরে স্ট্রোক করে মৃত্যু হয় তার। তার তিন মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।

পুলিশ বলছে, তিন-চার দিন ধরে একজন মানুষ মরে পড়ে আছেন, অথচ এরমধ্যে মৃতের ছেলে অনলাইনে অর্ডার করে খাবার এনে খেয়েছেন। কিন্তু বাসার ভেতরে থেকেও তিনি বাবার মৃত্যুর বিষয়টি বুঝতে পারেননি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles