24.8 C
Toronto
শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২

আমার কথা বলে ঘুষ চাইলে ‘ঝাড়ুপেটা’ করবেন: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

- Advertisement -
আমার কথা বলে ঘুষ চাইলে ‘ঝাড়ুপেটা’ করবেন: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী - The Bengali Times
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম দুর্নীতিকে প্রশ্রয় না দেয়ার কথা উল্লেখ করে তাঁর কথা বলে কেউ ঘুষ চালে তাঁকে ‘ঝাড়ুপেটা’ করতে বলেছেন।

তিনি বলেছেন, ‘আমি কোনো দুর্নীতি করি না। দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দিই না। কেউ যদি আমার কথা বলে ঘুষ চায় তাঁকে ধরে ঝাড়ুপেটা করবেন।’

সোমবার দুপুরে পিরোজপুরের নাজিরপুরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। উপকূলীয় চরাঞ্চলে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের সুফলভোগীদের মধ্যে উপকরণ বিতরণ উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর।

মন্ত্রী রেজাউল করিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রান্তিক মানুষকে স্বাবলম্বী করতে চান। বর্তমান সরকার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনের জন্য উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন উপকরণ সহায়তা দিচ্ছে। শেখ হাসিনা ছাড়া অতীতে কেউ এ রকম সহায়তা দেননি। তিনি চান একজন মানুষেরও যেন কষ্ট না থাকে, দারিদ্র্য না থাকে। তাই কারও কুপরামর্শে জামায়াত-বিএনপিকে ভোট দেবেন না। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে নৌকায় ভোট দেবেন।

নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আবদুল্লাহ সাদীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তরের পরিচালক মো. আবদুস সবুর, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা তরুন কুমার সিকদার, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের পরিচালক এসএম জিয়াউল হক, নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহরিয়ার ফেরদৌস, পিরোজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উপকূলীয় চরাঞ্চলে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় উপজেলার ৪ হাজার ৫৫৪ জন উপকারভোগীর মধ্যে হাঁস–মুরগির ঘরসহ প্রত্যেককে ২০টি হাঁস, ২০টি মুরগি ও তিনটি ভেড়া দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের ৯ জনকে ৫০টি করে কবুতর দেওয়া হয়।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles