21.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, আগস্ট ৯, ২০২২

আইভীর জবাবে শামীম ওসমান বললেন, সময় এসেছে নীরবতা ভাঙার

- Advertisement -
সেলিনা হায়াৎ আইভী ও শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী নিজের দলের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানকে ‘গডফাদার’ আখ্যা দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তৈমূর আলম তার লোক বলে যে মন্তব্য করেছেন, সে প্রসঙ্গে কথা বলেছেন শামীম ওসমান।

শনিবার সন্ধ্যায় তিনি বলেন, ‘আমার নীরবতা নিয়ে যে ধরনের কথাবার্তা চলছে, সময় এসেছে নীরবতা ভাঙার। সত্য বলতে চাই। এই সত্য হবে সাধারণ মানুষকে জানানোর জন্য।’ কয়েকদিনের মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি সত্য প্রকাশ করবেন, এজন্য এই প্রতিবেদককে অপেক্ষায় থাকতে বলেন শামীম ওসমান।

নাসিক নির্বাচনে দলীয় কোনো সিদ্ধান্ত না থাকলেও জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতারা তৈমূরকে সমর্থন জানিয়ে প্রকাশ্যে গণসংযোগ করেছেন। গত শুক্রবার তৈমূরের প্রচারণায় জাতীয় পার্টির চার ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন। এ নিয়ে শনিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান আওয়ামী লীগের প্রার্থী আইভী।

তিনি বলেন, ‘তৈমূর আলম বিএনপি কিংবা স্বতন্ত্র প্রার্থী নন। তিনি শামীম ও সেলিম ওসমানের প্রার্থী।’ এসময় আইভী আরও বলেন, ‘গতকাল (শুক্রবার) বন্দরে প্রচারণা চালানোর সময় সেলিম ওসমানের জাতীয় পার্টির চারজন চেয়ারম্যান তার সঙ্গে ছিলেন। এতে প্রমাণিত হয় সারা নারায়ণগঞ্জের গুঞ্জন সত্য, তৈমূর আলম খন্দকার গডফাদার শামীম ওসমানের ক্যান্ডিডেট, গতকাল তা প্রমাণিত হয়েছে।’

যদিও কয়েক দিন আগেও প্রচারের সময় শামীম ওসমানকে ‘বড়ভাই’ সম্বোধন করেন আইভী। সাংবাদিকদের তিনি বলেছিলেন, আচরণবিধির কারণে তিনি (শামীম ওসমান) প্রচারে আসতে পারছেন না। কিন্তু তিনি নৌকার পক্ষেই আছেন। নৌকার বিপক্ষে যাওয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু হঠাৎ শনিবার আবারও অতীতের মতো শামীম ওসমানকে ‘গডফাদার’ আখ্যা দেওয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগে একটা প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

এদিকে তৈমূর আলম শামীম ওসমানের ক্যান্ডিডেট- আইভীর এমন অভিযোগে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, ‘আমি জনগণের প্রার্থী। যেহেতু জনগণের প্রার্থী, তাই আওয়ামী লীগ প্রার্থী তার নিজের পরাজয় আঁচ করতে পেরে আবোলতাবোল বকছেন। আমি শামীম ওসমানের নয়, বরং নিজের পায়ে হাঁটি।’

জাতীয় পার্টি এ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে কোনো প্রার্থী না দিলেও আওয়ামী লীগ বা অন্য কোনো মেয়র প্রার্থীকে সমর্থন জানায়নি। এ নিয়ে চুপ আছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান। চুপ আছেন তার ছোট ভাই নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানও। এ দুই সংসদ সদস্যের সিটি নির্বাচন নিয়ে কোনো ভূমিকাও চোখে পড়েনি।

সূত্র : সমকাল

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles