-13.8 C
Toronto
শনিবার, জানুয়ারী ২২, ২০২২

করোনা: ডেলমিক্রন আরও শক্তিশালী

- Advertisement -

শীতের কারণে ইউরোপের দেশগুলোতে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আক্রান্তদের বেশিরভাগই ওমিক্রনে সংক্রমিত। এর মধ্যেই করোনাভাইরাসের আরও একটি ধরনের কথা সামনে এসেছে। এর নাম ডেলমিক্রন।

- Advertisement -

বিশেষজ্ঞরা এখনো ওমিক্রনের গতিপ্রকৃতি নির্ধারণে গবেষণা করছেন। তার উপর ডেলমিক্রনের পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ করে তুলতে পারে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপজুড়ে নতুন করে যে কোভিড সুনামি শুরু হয়েছে, তার নেপথ্যে রয়েছে ডেলমিক্রন।

ডেলমিক্রন করোনাভাইরাসের আলফা, বিটা কিংবা অন্য ধরনগুলোর মতো একেবারে নতুন কোনো ধরন নয়। মূলত করোনাভাইরাসের বিদ্যমান দুটি ধরন ডেলটা ও ওমিক্রনেরই সমন্বিত রূপ এটি।

ডেলটা ধরনের আধিপত্য ছিলো চলতি বছরের এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি থেকে জুনের মাঝামাঝি পর্যন্ত। এই ধরনটির কারণে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেখেছে বিশ্ব। ডেল্টায় আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির ঝুঁকিও অনেক বেশি। সুস্থ হওয়ার পরও যা দেহে সুদুরপ্রসারী প্রভাব ফেলেছে। অনেক আক্রান্তের দেহেই স্মৃতিভ্রম, পেশিতে ব্যথা ও চুল পড়ে যাওয়ার মতো দীর্ঘমেয়াদি জটিলতা দেখা দিয়েছে।

ওমিক্রন নিয়ে এই বিষয়ক গবেষণাগুলো এখনো চলমান থাকলেও প্রাথমিক কিছু ধারণা দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, ওমিক্রনের সংক্রমণক্ষমতা অনেক বেশি হলেও মারাত্মক কোনো উপসর্গ দেখা দেয় না এবং হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন কম হয়। এই ধরনে আক্রান্ত হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণ গলাব্যথা, মাথাব্যথা ও ক্লান্তিবোধ।

ডেলটা ও অমিক্রন ধরনের সমন্বিত রূপ ডেলমিক্রনকে উচ্চ সংক্রমণক্ষমতার ধরনই বলে মনে করা হচ্ছে। এর উপসর্গও গতে পারে মারাত্মক। তবে ডেলমিক্রন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আরও অনেক গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

ডেলমিক্রনের সম্ভাব্য সাধারণ কিছু উপসর্গ হলো উচ্চ তাপমাত্রা, ক্রমাগত কাশি, স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়া কিংবা স্বাদ-গন্ধে পরিবর্তন আসা, মাথাব্যথা, সর্দি ও গলাব্যথা।

যেসব মানুষের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা কম, যারা বয়স্ক ও যারা জটিল রোগে ভুগছেন, তারা ডেলটা ও অমিক্রন ধরনে আক্রান্ত হওয়ার উচ্চ ঝুঁকিতে থাকেন। যেসব এলাকায় টিকা নেওয়া মানুষের সংখ্যা কম, সেখানেও ডেলটা ও অমিক্রন ধরনের প্রকোপ দেখা দিতে পারে। তবে এই দুই ধরনের সমন্বিত রূপ ডেলমিক্রন শক্তিশালী ধরন হয়ে উঠবে কি না, তা নিয়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যে মতবিরোধ রয়েছে।

ডেলমিক্রমের ক্ষেত্রে যেসব উপসর্গ দেখা দেয়:

  • তীব্র জ্বর
  • টানা কাশি
  • স্বাদ-গন্ধের অনুভূতি চলে যাওয়া বা কমে যাওয়া
  • মাথাব্যথা
  • সর্দি
  • গলা খুসখুস

    যদিও বিশেষজ্ঞরা জানান, অন্য কোনো মিউটেশনের ফলে ওমিক্রনের পর করোনাভাইরাসের আরও একটি রূপ বেরিয়েছে বলে এখনও পর্যন্ত তাদের জানা নেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (‘হু’)-ও এ ব্যাপারে কিছু ঘোষণা করেনি। জানায়নি আমেরিকার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি)ও।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles