-4.6 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৭, ২০২২

পরিচালক কাট বলার পরও নায়ককে ছাড়ছিলেন না চুম্বনরত নায়িকা

- Advertisement -

ইমরান হাসমি ও নার্গিস ফকরি

বলিউডে তার পরিচয় ‘সিরিয়াল কিসার’ হিসেবে। সোজা কথায় চুম্বনদৃশ্যে অভিনয়ে জড়তাহীন, দক্ষ অভিনেতাও তিনি। হ্যাঁ, তিনি ইমরান হাসমি। সেই ইমরানকেও এবার লজ্জায় ফেলে দিয়েছিলেন এক নায়িকা। তার নাম নার্গিস ফকরি। আর ঘটনাটি ঘটে ‘আজহার’ সিনেমার শুটিংয়ে। এমনটাই বলছে ভারতের সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার।

সেখানে আরও বলা হয়েছে, ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ক্যাপ্টেনের জীবন নির্ভর এই সিনেমার নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন ইমরান। আর নার্গিসকে দেখা যাবে তার বান্ধবীর চরিত্রে। সিনেমায় একটি গানের শুটিং হচ্ছিল। গানের নাম ‘বোল দো না জারা’। আর সে গানেই নায়ক-নায়িকার চুম্বনের একটি দৃশ্য ছিল।

- Advertisement -

নার্গিস জানিয়েছেন, গানটির শুটিংয়ের সময় ইমরানকে একবার চুম্বন করার কথা ছিল তার। কিন্তু শুটিংয়ে তাকে একবার নয়, পাঁচবার চুম্বন করতে বলা হয় ইমরানকে। সেই চুম্বনের দৃশ্যও পুনর্গৃহীত হতে থাকে। বিরক্ত হয়ে নার্গিস আপত্তি তোলেন।

নায়িকা বলেন, চুক্তিতে এতবার চুম্বনের কথা তাকে জানানো হয়নি। তাই এর জন্য তিনি অতিরিক্ত পারিশ্রমিক চান। এক সাক্ষাৎকারে নার্গিস মজার ছলে বলেন, “গানের নাম ‘বোল দো না জারা’। অর্থাৎ আমি কি বলতে চাই, তা জানতে চাওয়া হচ্ছে। কিন্তু আমার ঠোঁট যদি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ওর ঠোঁটেই আটকে থাকে তাহলে আমি বলব কী করে!’

এমনকি এ নিয়ে ইমরানকেও দোষারোপ করতে ছাড়েননি নার্গিস। তার ভাষ্য, ‘ও এমন ভাব করছিল, যেন কিচ্ছু জানে না। যেন ওরও খুবই লজ্জা এবং অস্বস্তি হচ্ছে। কিন্তু আমি জানি, ও পুরো বিষয়টাই আগে থেকে জানত। আর তখন পরিস্থিতির মজা নিচ্ছিল।’

নায়িকা জানান, চরিত্রের প্রয়োজনে একটি নকল গোঁফ লাগাতে হয়েছিল ইমরানকে। চুম্বন দৃশ্যে সেই গোঁফও তার অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তবে এত আপত্তি, অস্বস্তি আর রাগারাগি, শেষ দৃশ্যে নার্গিসের কাণ্ড দেখে চমকে যান পরিচালক এবং ইমরানও।

একটি দৃশ্যে ইমরানকে চুমু খেতে বলা হয়েছিল অভিনেত্রীকে। সেখানে দেখা যায় পরিচালক কাট বলার পরও ইমরানকে চুম্বন করেই চলেছেন নার্গিস। বেশ কয়েকবার কাট বলার পরও সহ অভিনেতাকে ছাড়েননি এই অভিনেত্রী। বরং আরও বেশি জড়িয়ে ধরে তিনি তার দীর্ঘ চুম্বন জারি রাখেন। লজ্জায় লাল হতে হয়েছে ইমরানকে। শেষে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পরিচালক এবং শুটিং ইউনিটের সবাই হেঁসে ওঠেন। অবশেষে থামেন নার্গিস।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles