22.3 C
Toronto
শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

সম্পর্কে জড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ছবি পোস্ট করছেন ?

সম্পর্কে জড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ছবি পোস্ট করছেন ?
প্রতীকী ছবি

এমন অনেকেই আছেন যারা প্রতিদিন সামাজিক মাধ্যমে কিছু পোস্ট না করে থাকতে পারেন। কী খাচ্ছেন, কী পরছেন, কী করছেন কিংবা কোথায় যাচ্ছেন তা নিয়ে সারাদিনই চলতে থাকে পোস্ট দেওয়া। আবার এমন অনেকেই আছেন সম্পর্কের বয়স এক সপ্তাহ হতে না হতেই নিজেদের ছবি আপলোড করছেন ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে। নিজেরা কতটা ভালো আছেন তা নানাভাবে জানাতে থাকেন। যারা সম্পর্কটা নিয়ে ছবি দিচ্ছেন তারা একবারও কি ভাবেন এমনটা করা ঠিক কিনা? নিজের কাছেই প্রশ্ন করুন নিজেরা নিশ্চিত হতে পেরেছেন সম্পর্কটা নিয়ে? একে অপরের বিষয়ে কতটা জেনেছেন? সম্পর্ক নিয়ে যখন তখন সবাইকে জানানো কি খুব প্রয়োজন? মনে রাখবেন, কোনো ভালবাসার সম্পর্ক লোক দেখানোর তো নয়। সেটা সম্পূর্ণ আপনাদের ব্যক্তিগত।

মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, যেকোনো সম্পর্ক প্রথম প্রথম মিষ্টিই থাকে। সময় যত এগোবে একটু একটু করে ফিকে হতে পারে এই ভালোলাগার আবেশ। মানুষের মধ্যে দোষ গুণ থাকবে এটাই স্বাভাবিক। প্রথম প্রথম সবাই সঙ্গীর ভালোটাই দেখাতে চায়। দোষগুলো লুকোনোই থাকে। ধীরে ধীরে ছোট ছোট কথায়, কাজে, ব্যবহারে সেগুলো সামনে আসে। এ কারণে একজন মানুষকে ভালোভাবে চিনতে সময় নিন। তারপর তার সঙ্গে সম্পর্কে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিন। আরেকটা বিষয়, সঙ্গীর মত ছাড়া ছবি শেয়ার করবেন না সোশ্যাল মিডিয়ায়। তা না হলে আপনাদের সম্পর্ক খারাপ হতে পারে।

- Advertisement -

বর্তমান সময়ে অধিকাংশ জুটি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের দেখাতে, ছবি শেয়ার করতে ব্যস্ত থাকে। মনে রাখবেন, ছবি শেয়ার করার মানেই আপনার সম্পর্কে প্রাইভেসি অক্ষত থাকছে না। আবার এমন হতে পারে আপনি ছবি দিয়ে যাচ্ছেন কিন্তু আপনার সঙ্গী এসব পছন্দই করছে না। তিনি হয়তো আপনাদের মুহূর্তগুলো কেবল নিজেদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখতে চান। সেক্ষেত্রে আপনার সঙ্গী বিরক্ত হতে পারে।

মনে রাখবেন সম্পর্ককে মজবুত করতে একে অপরের পাশে থাকাই যথেষ্ট। এর জন্য কোনো তৃতীয় ব্যক্তির সাহায্যের প্রয়োজন হয় না। নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া থাকলে সেই সম্পর্কে ছেদ পড়ে না। আজকাল অনেক ছেলেমেয়ের ধারণা আমি এর চেয়েও ভালো কাউকে জীবনে পেতে পারি। সেই সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দেওয়ার চল তো রয়েছে। সব মিলিয়ে ছবি দেওয়ার ফলে সম্পর্কে প্রভাব পড়তে পারে। তখন সম্পর্ক ভাঙতে পারে। আর যে কোন তৃতীয় ব্যক্তির হস্তক্ষেপে সম্পর্কের বিশ্বাস বোঝাপড়া নষ্ট হতে পারে। তাই সম্পর্কটা যদি ব্যক্তিগত রাখেন তাহলে সেই সম্ভাবনা এড়ানো যাবে। লোকজন যতো কম জানবেন আপনাদের সম্পর্কে তত সুখ শান্তি বজায় থাকবে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles