32.2 C
Toronto
বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪

লটারিতে ৭ কোটি ডলার জিতলেন টরন্টোর এক বাসিন্দা

লটারিতে ৭ কোটি ডলার জিতলেন টরন্টোর এক বাসিন্দা
সম্প্রতি লোটো ম্যাক্স ড্রয়ে জিতে টরন্টোর এক বাসিন্দা যখন ৭ কোটি ডলারের তহবিল তার ব্যাংক হিসাবে দেখতে পান তখন তার চেয়ার থেকে পড়ে যাওয়ার দশা হয়েছিল

সম্প্রতি লোটো ম্যাক্স ড্রয়ে জিতে টরন্টোর এক বাসিন্দা যখন ৭ কোটি ডলারের তহবিল তার ব্যাংক হিসাবে দেখতে পান তখন তার চেয়ার থেকে পড়ে যাওয়ার দশা হয়েছিল। অন্টারিও লটারি অ্যান্ড গেমিং কর্পোরেশনের (ওএলজি) এক ভিডিওতে সংস্থাটির মুখপাত্রকে গ্রেগ চিয়ালটাসের উদ্দেশে বলতে শোনা যায়, আপনি আপনার ব্যাংক হিসাবে লগ করলে দেখবেন এটা অনেকটা আন্তর্জাতিক ফোন নাম্বারের মতো।

লগ অন করার পর চিয়ালটাসের চোখ বড় হয়ে ওঠে। তিনি রঙিন কিছু শব্দ ব্যবহার করেন এবং তার হাত দুটি কাঁপছিল। বিষয়টি এমন হয়েছিল যে তার চেয়ার থেকে পড়ে যাওয়ার দশা। এ সময় তার চোখে পানি চলে আসে এবং তিনি হাসছিলেনও।
১৯ এপ্রিল লোটো ম্যাক্স লটারির ড্রয়ে এই পুরস্কার পান চিয়ালটাস। এই সিঙ্গেল ফাদার ওএলজিকে বলেন, গ্রোসারি কিনতে বের হওয়ার সময় তিনি টিকিটটি কেনেন এবং তার সন্তান, ভাই-বোন এবং তার বৃহৎ গ্রিক পরিবারের কাছে অর্থপূর্ণ এমন সংখ্যাগুলো বেছে নেন। এটা অনেকটা একঘেয়েমির মতো। অনেকটা ওই মুভির মতো। কিন্তু আমি এটা অন্য কোনোভাবে পাইনি।

- Advertisement -

সম্প্রতি অবসরে যাওয়া সরকারি কর্মী চিয়ারটাস বলেন, সম্প্রতি তার কিছু স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিয়েছে। প্রথমে ভাগ্যকে বিশ্বাস করতে পারিনি এবং নাম্বারটা মিলিয়ে দেখার জন্য বন্ধুকে ফোন করি।

সে কথা স্মরণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, আমি তাকে ওএলজিতে সংখ্যাটি পরীক্ষা করে দেখতে এবং আমাকে পড়ে শোনাতে বলি। সবগুলো সংখ্যা তখনো মিলে যায়। আমাদের কাছে এটা ছিল অবিশ^াস্য। তবে বিজয়ী টিকিটটি যে আমারই সে ব্যাপারে আমাকে সত্যি সত্যিই নিশ্চিত হতে হয়েছিল। বিজয়ী টিকিটটি যে তারই সেটা নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি ফেসটাইমে কল করে পরিবারের সদস্যদের খরবটি জানান। কিন্তু কেউই তাকে বিশ্বাস করেননি। ঘটনাটি যে সত্যি সে ব্যাপারে তাদেরকে বোঝাতে কিছুটা সময় লেগেছিল।

এখন তিনি কী করতে চান এই প্রশ্নের জবাবে বড় পরিকল্পনার কথা জানান চিয়াল্টাস। তিনি বলেন, আপনি যেকোনো কিছুই কিনতে পারেন। কিন্তু আপনি জানেন, স্মৃতি হচ্ছে সেটা যেটা আপনি মনে করতে যাচ্ছেন। সুতরাং আমি এটাকে কোনো কিছু কেনার উপায় মনে করছি না। আমি এমন কিছু স্মৃতি তৈরির কথা ভাবছি, যা সারাজীবন আমাদের সঙ্গে থাকবে।

 

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles