26.4 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

চোখে জল না আসাটাই দুঃখজনক

চোখে জল না আসাটাই দুঃখজনক
অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা

আসলে আমি তো কাউকে গরুর মাংস খেতে নিষেধ করিনি। আমি ধর্মীয় কোনো বিষয়েও কাউকে আঘাত করিনি। তাহলে চিন্তা করুন তারা কী বিষয় নিয়ে আক্রমণ করছে। যারা এসব করে তারা কেন করে তা আমার কোনোভাবেই বোধগম্য হচ্ছে না বলছিলেন অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। সম্প্রতি একটি গরুর ছবি পোস্ট করেছিলেন অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা।

সেই ছবির ক্যাপশন দিয়েছিলেন, ‘আমার কান্নার শব্দ কি শোনা যায় তোমার শহরে?’ এই ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের একাংশ ভাবনার তীব্র সমালোচনা করে বলেন, ‘গরুর প্রতি এত মায়া কীসের? আপনি কী গরুর মাংস খান না?’ এ বিষয়ে ভাবনা বলেন, দেখেন একবার মা দিবসে চঞ্চল চৌধুরীর মা ও আমার মাকে নিয়ে ফেসবুকে খুবই বাজে মন্তব্য দেখেছিলাম। তখন থেকে এসব মন্তব্য নিয়ে কথা বলা থেকে বিরত ছিলাম।

- Advertisement -

জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী বলেন, ‘দেখেন একটা তৃষ্ণার্ত গরুর চোখ দিয়ে অশ্রু পড়ছে, অসহায় একটা গরু, যার গভীর কষ্টবোধ থেকে হয়তো কান্না চলে আসছে, চোখ ভিজে যাচ্ছে জলে; তখন আপনার প্রতিক্রিয়া কেমন হবে? তখন আপনার চোখে যদি জল না আসে সেটাই তো হবে দুঃখজনক। যারা এটা নিয়ে নেতিবাচক কথা বলছে তাদের মানবিকতাবোধ নিয়ে প্রশ্ন আছে। তারা সবখানেই সমালোচনা করে, এদের সমস্যা মানসিকতায়।

ভাবনা মনে করেন অভিনয় পেশায় যারা রয়েছে তাদের অনুসরণ করে অনেকেই। ভাবনা বলেন, সামাজিক মাধ্যমে নেতিবাচক মন্তব্য যারা করে; তারা যে শুধু আমার ছবিতেই বাজে মন্তব্য করছে এমনটা নয়। এরা জয়া আহসান থেকে শুরু করে দিলারা জামান সবখানেই অশালীন মন্তব্য করে। এসব বরাবরই এড়িয়ে যেতাম, কিন্তু গরুর ছবি নিয়ে যা হচ্ছিল, তাতে করে আমার কিছু একটা বলার প্রয়োজন ছিল। আমি হয়তো বলি না, কিন্তু যখন আমার প্রয়োজন মনে হবে তখন অবশ্যই আমি কথা বলব।

ভাবনা অবশ্য এসব নিয়েই যে মাথা ঘামাচ্ছেন তা নয়। ভাবনা কবিতা, গল্প, উপন্যাস লেখেন, ছবি আঁকেন। এই প্রতিবেদন লেখার সময় ভাবনা একটি ফটোশুট করছিলেন। সেখান থেকে জানালেন, এখন তিনি চলচ্চিত্রের বাকি কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। শিগগির চারুলতা সিনেমার শুটিং শুরু হবে। ভাবনা বললেন, এই ছবিটার নিউ মার্কেট অংশটার পর শুটিং শুরু হবে। এখন এই শুটিংয়ের জন্য অপেক্ষা করছি। ছবির নানা বিষয় রয়েছে, অভিনয়ের কিছু কাজ রয়েছে, সেসবের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী জানালেন, এ ছাড়াও বাবা হাবিবুল ইসলামের পরিচালিত সিনেমা ‘যাপিত জীবন’-এর কিছু কাজ বাকি আছে, সেটা করবেন। ‘পায়েল’ ছবির কিছু অংশ কাজ বাকি রয়েছে। সেটার কাজ শুরু হবে। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে চট্টগ্রাম পুলিশের সিনেমা ‘দামপাড়া’।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles