22.1 C
Toronto
সোমবার, মে ২০, ২০২৪

যেভাবে ডা. নাজনীনের সহযোগিতায় চলন্ত ট্রেনে সন্তান জন্ম

যেভাবে ডা. নাজনীনের সহযোগিতায় চলন্ত ট্রেনে সন্তান জন্ম

ঈদের ছুটিতে নাড়ির টানে ছুটছে মানুষ। প্রচণ্ড ভিড় ট্রেন কিংবা বাসে। লঞ্চেও কমতি নেই। সুস্থ্য, অসুস্থ্য প্রায় সব শ্রেণীর মানুষ এই যাত্রাই শামিল। এদিকে রাজশাহীগামি একটি ট্রেনে ঘটল অদ্ভুত এক ঘটনা। যার স্বাক্ষী ট্রেনের যাত্রীরা। হঠাৎ করে এক নারীর চিৎকারের শব্দ। প্রচণ্ড চিকিৎকারে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে এমন পরিস্থিতিতে অনেক মানুষ এগিয়ে আসেন। যার প্রেক্ষিতে রক্ষ।

- Advertisement -

জানা যায়, রাজশাহী-খুলনা রুটে চলাচলকারী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনে সন্তান প্রসব করেছেন স্বর্ণা আক্তার নামে এক নারী। সোমবার (৮ এপ্রিল) সকালে ঈদযাত্রার চলন্ত ট্রেনে এমন ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনে সন্তান প্রসব করা স্বর্ণা আক্তারের বাড়ি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার হুগরি পান্তাপাড়া গ্রামে। তার স্বামীর নাম ইয়াসিন আরাফাত।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার জানান, সন্তানসম্ভবা স্বর্ণাকে ঝিনাইদহ থেকে রাজশাহী নিয়ে আসছিলেন স্বজনরা। ট্রেনটি ঈশ্বরদীর কাছাকাছি এলাকায় এলে হঠাৎ করেই স্বর্ণার প্রসব বেদনা শুরু হয়। পরে ট্রেনের মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়, কোনো চিকিৎসক যদি থাকেন তিনি যেন দ্রুতই ছুটে যান ‘ঙ’ বগিতে। ট্রেনে ছিলেন শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নাজনীন আক্তার। মাইকে অনুরোধ শুনেই ছুটে গেলেন। কাপড় টানিয়ে চারপাশ ঘিরে বগিতেই করা হলো ‘ওটি’। ১০ মিনিটের মাথায় জন্ম নিল এক শিশু।

তিনি আরও জানান, ট্রেনটি বিকেলে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছলে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক নিজেই ছুটে যান উপহারসামগ্রী নিয়ে। তারপর রেলওয়ের অ্যাম্বুলেন্সে করেই নবজাতকসহ মাকে একটি ক্লিনিকে পাঠানো হয়।

অসীম কুমার তালুকদার জানান, স্বর্ণাকে রাজশাহীতেই একটি ক্লিনিকে আনা হচ্ছিল সন্তান প্রসবের জন্য। সঙ্গে কয়েকজন নারী ও এক দেবর ছিলেন। আসার পথে ট্রেনের ভেতরই স্বর্ণা সন্তান প্রসব করেছেন। তারা যে ক্লিনিকে যেতেন রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছানোর পর অ্যাম্বুলেন্সে করে সেখানে পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন, মা ও নবজাতক সুস্থ আছে।

সূত্র : যায়যায় দিন

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles