20.9 C
Toronto
শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

নাগরিকত্ব নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক

নাগরিকত্ব নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক
বিদেশি বংশোদ্ভুত কানাডিয়ানদের সন্তানরা বিদেশে বড় হলে তাদের নাগরিকত্ব স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিলে ফেডারেল সরকারের সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক হিসেবে রায় দিয়েছেন অন্টারিওর একজন বিচারক

বিদেশি বংশোদ্ভুত কানাডিয়ানদের সন্তানরা বিদেশে বড় হলে তাদের নাগরিকত্ব স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিলে ফেডারেল সরকারের সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক হিসেবে রায় দিয়েছেন অন্টারিওর একজন বিচারক।

১৯ ডিসেম্বর প্রকাশিত রায়ে অন্টারিও সুপিরির কোর্ট অব জাস্টিস ‘সেকেন্ড জেনারেল কাট-অফ’ নিয়ম ছয় মাসের মধ্যে বাতিল করতে ফেডারেল সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে। সেই সাথে নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করতে বলেছে।

- Advertisement -

কানাডিয়ান বংশোদ্ভুতদের বিদেশে সন্তান থাকলে তারা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কানাডিয়ান নাগরিক হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে। কিন্তু কেউ যদি বিদেশে জন্মগ্রহণ করে এবং কানাডার বাইরে তাদের সন্তান থাকে তাহলে ওই সন্তানরা কানাডার নাগরিক হিসেবে বিবেচিত হয় না। একে সেকেন্ড জেনারেশন কাট-অফ বলা হয়ে থাকে।

বিচারপতি জেসমিন আকবরআলি রায়কে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যান এবং যে সাতটি পরিবার বিষয়টি আদালতে তুলে আনে তার মধ্যে তিনটি পরিবারকে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক স্বস্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। মাল্টি-জেনারেশনাল সাতটি কানাডিয়ান পরিবারের বিদেশে জন্ম নেওয়া সন্তানদের কানাডিয়ান নাগরিকত্ব অস্বীকার করা হলে তারা ফেডারেল সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এই রায় দিয়েছে।

ওই পরিবারগুলোর যুক্তি, বিদেশে জন্ম নেওয়া কানাডিয়ানদের কানাডায় জন্ম নেওয়া নাগরিকদের মতো বিবেচনা না করার মধ্য দিয়ে নিয়মটি চার্টার অব রাইটস অ্যান্ড ফ্রিডমস লঙ্ঘন করছে।

২০০৯ সালে তৎকালীন কনজার্ভেটিভ সরকার সেকেন্ড জেনারেশন কাট-অফ বাস্তবায়ন করে। ২০০৬ সালে মাসব্যাপী লেবাননে ইসরায়েলের যুদ্ধের মধ্যে লেবানিজ কানাডিয়ানদের ব্যাপকভিত্তিতে সরিয়ে আনার পর বিল এস-২৪৫ উত্থাপন করা হয়। এই উদ্ধার তৎপরতা উদ্ধারকৃতদের কানাডিয়ান নাগরিকত্বের বৈধতাকে প্রশ্নের মুখে ফেলে দেয়।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles